1. bpdemon@gmail.com : Daily Kaljoyi : Daily Kaljoyi
  2. ratulmizan085@gmail.com : Daily Kaljoyi : Daily Kaljoyi
ভূমি কর্মকর্তাকে পেটালেন আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান!
বাংলাদেশ । রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪ ।। ১৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

ভূমি কর্মকর্তাকে পেটালেন আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান!

মোতাহার হোসেন:
  • প্রকাশিত: শনিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২৬৪ বার পড়েছে
ক্ষমতার দাপট বটে মিঠাপুকুরে ভূমি কর্মকর্তাকে পেটালেন আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান!
ক্ষমতার দাপট বটে মিঠাপুকুরে ভূমি কর্মকর্তাকে পেটালেন আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান!

রংপুরের মিঠাপুকুরে একজন ভূমি কর্মকর্তাকে মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে একজন ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার বড় হযরতপুর ইউনিয়নের ভূমি অফিসে। ভুক্তভোগী ওই ভূমি কর্মকর্তাকে থানায় জিডি করার নির্দেশ দেন এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য এইচএন আশিকুর রহমান ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে ঘটনাটি অবগত করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন।

ভুক্তভোগী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মিঠাপুকুর উপজেলার বড় হযরতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মিয়া একটি জমির খারিজ করার জন্য বড় হযরতপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে আবেদন করেন। ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম খারিজের আবেদনটি তদন্ত পূর্বক নথিসহ প্রতিবেদন মিঠাপুকুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ে প্রেরণ করেন। সেখানে যাচাই-বাচাই শেষে খারিজ আবেদনটি বাতিল হয়ে যায়। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান দোষারোপ করেন ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামকে।

এরই রেশ ধরে ৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মিয়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তাকে মোবাইল ফোনে গালিগালাজ করেন। এবং কিছুক্ষণ পরে চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মিয়া তার সঙ্গীয় লোকজন নিয়ে ওই ভূমি কর্মকর্তাকে তার অফিসে গিয়ে অফিসে গিয়ে আক্রমন করেন। এসময় ওই চেয়ারম্যান ও তার লোকজন ভূমি কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামকে বেধড়ক মারপিট করাসহ অফিসের ফাইলপত্র, চেয়ার, টেবিল ও আসবাবপত্র তছনছ করেন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় রেহায় পান ভূমি কর্মকর্তা।

ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, মোবাইল ফোনে গালিগালাজ করার কয়েক মিনিট পরে চেয়ারম্যান লোকজনসহ আমার উপর আক্রমন চালায়। তিনি কয়েকদফা আমাকে লক্ষ করে চেয়ার ছুড়ে মারেন, মারপিট করেন। তার সঙ্গে থাকা লোকজনেরা পিছন দিক হতে আমাকে আঘাত করতে থাকে। পরে উপস্থিত লোকজনের সহায়তার আমি রক্ষা পাই। তিনি আরও বলেন, ঘটনার কিছুক্ষন পর চেয়ারম্যান আমার কাছে এসে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। আমি বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছি।

অভিযুক্ত বড় হযরতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেতা আব্দুল মতিন মিয়া বলেন, গায়ে হাত তোলা হয়নি, কথা কাটাকাটি হয়েছে। পরে বিষয়টি সেখানেই সমাধান হয়েছে। সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও উপজেলা নির্বাহি অফিসার (অ:দা) রুহুল আমিন বলেন, ঘটনাটি নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য থানা পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও এইচএন আশিকুর রহমান এমপি স্যার ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।মোতাহার হোসেন

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
প্রকাশক কর্তৃক জেম প্রিন্টিং এন্ড পাবলিকেশন্স, ৩৭৪/৩ ঝাউতলা থেকে প্রকাশিত এবং মুদ্রিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Hi-Tech IT BD