নৌকা ধানের শীষ এমনকি কোন প্রতীকে ভোট দেন না, ৫০টি পরিবার!

102

হালিম সৈকত,কুমিল্লা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হতে আর মাত্র ৮ দিন বাকী। নির্বাচনকে ঘিরে ঘটছে নানা ঘটনা। চলছে প্রচার প্রচারণা। চারিদিকে হৈ হৈ রৈ রৈ। নির্বাচনকে ঘিরে আমাদের চারপাশে ঘটে নানা মজাদার ও ব্যতিক্রমী ঘটনা। বিগত বিভিন্ন নির্বাচন পর্যবেক্ষণের অভিজ্ঞতা ও বর্তমান নির্বাচনের এমনই কিছু দৃশ্যের অবতারনা করব আজ। এগুলোর কোনটা অতীতে দেখা গেছে অথবা সামনের নির্বাচনের দেখা যেতে পারে।

দৃশ্য-১: মুজিব কোট পড়ে এবং নৌকার ব্যাজ পড়ে ধানের শীষে ভোট দেবার পায়তারা করছে একদল বিরোধী পক্ষ। বিগত সিটি নির্বাচনে এমনটি দেখা গেছে। এবারও এমনটি হতে পারে অনুমান করছেন আ’লীগের নেতাকর্মীরা। বিশেষ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পর্যন্ত নেতাকর্মীদের এই বিষয়ে সজাগ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

দৃশ্য-২: নৌকা এবং ধানের শীষে এমনকি কোন প্রতীকে ভোট দেন না দাউদকান্দি উপজেলার কুশিয়ারা গ্রামের প্রায় ৫০টি পরিবার। তাদের বিশ্বাস মানুষের তৈরি গণতন্ত্র আল্লাহর বিধি বিধানের পরিপন্থি। আমেরিকার তৈরি গণতন্ত্র তারা মানেন না। এমনটিই জানিয়েছেন ঐ পরিবারগুলোর কয়েকজন মুরব্বী। এ কারণে তাদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে কোন উৎসব এবং কথা বার্তা নেই। তারা কোন নির্বাচনে ভোট দেন না বলে জানান।

দৃশ-৩: একাদশ সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে চলছে গ্রেফতার আর আটকের ঘটনা। বিশেষ করে বিরোধী মতবাদের উপর এটি হর-হামেশাই দেখা যায়। চলছে গ্রেফতার এবং চলবে নির্বাচনের আগের রাত পর্যন্ত অর্থাৎ যাকে অনেকে চাঁন রাত বলে থাকেন। বিএনপির নেতাকর্মীরাই বেশি আটক হচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে। গতকাল কুমিল্লা ফৌজদারী মুড়ে ঘটল এক অভিনব ঘটনা। প্রায় এক গাড়ি নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ ভ্যানে করে নিয়ে যাচ্ছেন কুমিল্লা কারাগারে। হঠাৎ ভেতর থেকে শোনা যাচ্ছে ধানের শীষ ধানের শীষ। আশেপাশের লোকজন কৌতুহলী হয়ে জিজ্ঞাসা করছেন কি হচ্ছে!

দৃশ-৪: জামায়তের বিষয়ে সিদ্ধান্ত: জামায়তরে নিবন্ধন বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন বহু আগেই। যে কারণে তারা নিজেদের প্রতীক দাঁড়িপাল্লা নিয়ে নির্বাচন করতে পারছেন না। তাদের ২৫ জন এমপি প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন। কিন্তু এই বিষয়ে দু’এক দিনের মধ্যে রায় হবার সম্ভাবনা রয়েছে তারা কি ধানের শীষে নির্বাচন করতে পারবেন নাকি পারবেন না?

দৃশ্য-৫: বুড়িচং প্রিন্টার্সের মালিক আবদুল ওহাব একজন বিএনপির কট্টোর সমর্থক। গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ করেন। কিন্তু নৌকার কাজ সে করে না। তার কাছে কেউ নৌকার কাজ নিয়ে এলে সোজা না বলে দেয়। কোটি টাকা দিলেও সে নৌকার কোন ব্যানার, ফেস্টুন করবে না এ তার ওয়াদা। এটা কি ব্যবসায়ী সুলভ আচরন হলো জিজ্ঞাসা করাতে বললেন, আমার ব্যবসার দরকার নাই। নৌকার কাজ আমাকে কোটি টাকা দিলেও কেউ করাতে পারবেন না। ইতোমধ্যে আমি অনেক কাজ ছেড়ে দিয়েছি। দলকে আমি প্রচন্ড ভালোবাসি।

দৃশ্য-৬: নির্বাচনী প্রচারণায় এবার দেখা গেছে ভিন্ন আমেজ। বিশেষ করে আ’লীগের হয়ে সারাদেশ ঘুরে বেড়াচ্ছেন একদল তারকা। বিশেষ করে শোবিজ, নাটক, গায়ক এবং ক্রীড়াঙ্গনের অনেক তারকা এক হয়ে আ’লীগের প্রচারে অংশ নিচ্ছেন। এখনও পর্যন্ত অতীতের কোন নির্বাচনে এই রকম দেখা যায় নি। বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, চিত্রনায়ক সুপার স্টার শাকিব খান, ফেরদৌস, রিয়াজ, শমী কায়সার, তারিন, রোকয়া প্রাচী, ড্যানি সিডাক, জনপ্রিয় গায়ক এস ডি রুবেল, কবরী, নূতন, অরুণা বিশ্বাস, শাকিল খান ও মীর সাব্বিরসহ একঝাক শোবিজ তারকা আ’লীগের হয়ে নৌকায় ভোট চাচ্ছেন। সারাদেশ ঘুরে ঘুরে প্রচার চালাচ্ছেন। নৌকার প্রার্থী হয়েছেন ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তূজা, নাটকের বাকের ভাই আসাদুজ্জামান নূর এবং চিত্রনায়ক আকবর হোসেন খান পাঠান ফারুক। অন্যদিকে বিএনপির তারকাদের মধ্যে রয়েছে কনক চাঁপা এবং কন্ঠ শিল্পী বেবী নাজনীন।

দৃশ্য-৭: ইন্টারনেটের গতি: শোনা যাচ্ছে নির্বাচনের দিন ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেয়া হবে। অপরদিকে আগামী ৪ দিন বন্ধের কবলে ব্যাংকিং খাত। ইতোমধ্যে নির্বাচনের দিন ৩০ তারিখ সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

দৃশ্য-৮: সেনাবাহিনী নামবে শোনা যাচ্ছে আগামী ২৪ ডিসেম্বর। তাদেরকে ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ার দিয়ে মাঠে নামানো হচ্ছে বলে শোনা যাচ্ছে। বর্তমানে বিজিবি মাঠে রয়েছে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে।

দৃশ্য-৯: প্রায় ২৫ হাজার নির্বাচন পর্যবেক্ষক কাজ করবেন বলে জানা যাচ্ছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তাদের অনুমতি দেয়া হয়নি। দেশী বিদেশী মিলিয়ে এই সংখ্যা। তার মধ্যে ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপের ১৫ হাজার কাজ করবে। তাদের সাথে রয়েছেন ২১ টি সংগঠন। ২১টি সংগঠনের প্রায় ১৫ হাজার অবজারভার কাজ করবেন বলে জানান খান ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here