বগুড়ায় জেলা আ’লীগ সভাপতি মজনু,সাঃ সম্পাদক রিপু

55

জিএম মিজান: বগুড়ায় আওয়ামী লীগের জেলা কমিটিতে মজিবর রহমান মজনু সভাপতি এবং রাগেবুল আহসান রিপু সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন। শনিবার অনুষ্ঠিত সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম তাদের নাম ঘোষণা করেন। শহরের আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে সম্মেলন স্থলে তিনি আরও তিনটি পদে পাঁচজনের নাম ঘোষণা করেন। তারা হলেনঃ সহ-সভাপতি টি জামান নিকেতা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে মঞ্জুরুল আলম মোহন, সাগর কুমার রায় ও আসাদুর রহমান দুলু এবং কোষাধ্যক্ষ মাসুদুর রহমান মিলন। দ্বিতীয় অধিবেশনের সভাপতি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক জানান, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে যারা প্রার্থী হয়েছিলেন, তাদের সঙ্গে শুক্রবার রাতে কথা বলে বগুড়ায় দলের সার্বিক পরিস্থিতি আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হয়। পরে তিনি যোগ্যদের মধ্য থেকে নতুন নেতৃত্ব বেছে নেন। কমিটি ঘোষণার পর আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে দ্রুততম সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের আহবান জানান। এর আগে সকাল সাড়ে ১১টায় জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডাঃ মকবুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএচএম খায়রুজ্জামান লিটন, বগুড়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান, বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবর রহমান, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ রোকেয়া সুলতানা, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু ও মেরিনা জাহান। সম্মেলনে সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের বিলুপ্ত কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খান রনি। সম্মেলনে ৫১৫জন কাউন্সিলর ছাড়াও প্রায় ২০ হাজার ডেলিগেট উপস্থিত উপস্থিত ছিলেন। সভাপতি মজিবর রহমান মজনু সদ্য বিলুপ্ত জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এছাড়া সহ-সভাপতি টি জামান নিকেতাও বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। যে তিনজনকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়েছে তাদের মধ্যে মঞ্জুরুল আলম মোহন ওই একই পদেই ছিলেন। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনীত অপর দু’জনের একজন সাগর কুমার রায় বিলুপ্ত কমিটির যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক এবং আসাদুর রহমান দুলু সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। তবে কোষাধ্যক্ষ পদে যাকে মনোনীত করা হয়েছে সেই মাসুদুর রহমান মিলন বিলুপ্ত কমিটির কোন সদস্য ছিলেন না। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সভাপতি মমতাজ উদ্দিনের কনিষ্ঠ পুত্র এবং বগুড়া চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি।