উদ্বৃত্ত্ব হলে তবেই খাদ্যসশ্য রপ্তানী করা হবে-খাদ্যমন্ত্রী

74

রুহুল আমিন: খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বলেছেন – সরকারি গুদামে আমন মওসুমের ধান সংগ্রহ চলছে। শিগগিরিই চাল কেনা শুরু করা হবে। এর পর উৎপাদন, চাহিদা ও মজুতের হিসাব করা হবে। অধিক উদ্বৃত্ত্ব হলে চাল রপ্তানী করবে সরকার। মোটা চাল রপ্তানীর জন্য বেশ কয়েকটি দেশের সাথে কথাও হয়েছে। তবে দেশের চাহিদা ও কৃষকের স্বার্থ ঠিক রেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। বৃহস্পতিবার নওগাঁর সাপাহার উপজেলা খাদ্যগুদামে ধান সংগ্রহ পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা বলেন তিনি । এসময় গুদামে আগত কৃষকদের সাথে কথা বলেন ও ধান দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন মন্ত্রী। মন্ত্রী আরো বলেন- কৃষকের স্বার্থ রক্ষায় সরকার শস্য ক্রয়নীতিতে পরিবর্তন এনেছে। ইতোপূর্বে কখনই আমনের ধান কেনা হয়নি। এবার ৬ লাখ টন ধান কেনা হচ্ছে। সেই ধান সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে সংগ্রহ চলছে।

স্বচ্ছ প্রকৃয়ার মধ্যদিয়ে ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে মন্তব্য করে মন্ত্রী আরো বলেন- দালাল, ফরিয়া বা মধ্যস্বত্বভোগীরা যাতে কৃষকের ধানে ফায়দা লুটতে না পারে সেজন্য সংগ্রহের শুরুতেই নানামূখী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদেরকে ডেকে সতর্ক করা হয়েছে। কোন অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খাদ্য বিভাগ ছাড়াও স্থানীয় প্রশাসন ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে সিঠিক চাষি তালিকা তৈরী ও সেই তালিকা ধরে ধান সংগ্রহ হচ্ছে। কোথাও চাষির আবেদন বেশী জমা পড়লে লটারীর মাধ্যমে কৃষক বাছাই করা হচ্ছে। অতএব অনিয়ম করার কোন সুযোগ কেউ পাবে না।

সরকারি ভাবে ধান ও চাল সংগ্রহে কৃষকসহ সকলকে সহযোগিতা করার আহবান জানান মন্ত্রী। গুদাম পরিদর্শনকালে জেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রক জিএম ফারুক হোসেন পাটয়ারী ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পরে তিনি সাপাহার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে যোগ দেন।