অবৈধভাবে অনুপ্রবেশে ভারতীয় বিএসএফ আটক

47

মোঃ সাগর হোসেন: বেনাপোল সীমান্ত থেকে ১ জন বিএসএফ সদস্যকে অবৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অভিযোগ আটক করে বিজিবি। পরে দুই দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিজিবি ও বিএসএফ এর পতাকা বৈঠকের মাধ্যেমে বিএসএফ সদস্যকে হস্তান্তর করা হয়। বুধবার বেলা তিন টার সময় এ ঘটনা ঘটে বেনাপোল চেকপোষ্ট এলাকায়।বিএসএফ সদস্যরা বিজিবির ক্যাম্পের পিছন দিয়ে পুরাতন ইমিগ্রেশন এর ভিতরে প্রবেশ করে। এখান থেকে সে আটক হয়।

বিজিবি সুত্র জানায়, বাংলাদেশের আলী হোসেন নামে একজন পাসপোর্ট বিহীন লোককে অবৈধ ভাবে ভারতে প্রবেশের অভিযোগ পেট্রাপোল বিএসএফ আটক করে। পরে তাকে পেট্রাপোল থানায় হস্তান্তরের জন্য নিয়ে গাড়িতে উঠানোর সময সে প্রসাব করার কথা বলে । বিএসএফ সদস্যরা তাকে প্রসব করতে সুযোগ দিলে সে দৌড়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এরপর বিএসএফ এর ৪ সদস্য ( ২ জন মহিলা সদস্য ও ২ জন পুরুষ সদস্য) তাকে ধাওয়া করে বাংলাদেশের আনুমানিক ৩০০ গজ ভিতরে প্রবেশ করে। সাথে সাথে বিজিবি সদস্যরা বিএসএফ সদস্যদের আটকের জন্য অভিযান চালালে তিন জন বিএসএফ সদস্য কৌশলে পালিয়ে যায়। তবে পেট্রাপোল ক্যাম্পের হেড কনষ্টবল চৈতান্য বিজিবি সদস্যদের হাতে আটক হয়।

বেনাপোল চেকপোষ্টে এলাকায় বিএসএফ সদস্যদের অনুপ্রবেশে উৎসুক জনতারা ছবি ও ভিডিও করে বলে জানা যায়। তবে বিজিবি সদস্যরা কয়েকজনকে নিয়ে তাদের হাতে থাকা মোবাইল থেকে ভিডিও ছবি ডিলেট করে দেয়। ভারতে অনুপ্রবেশকারী বাংলাদেশী নাগরিক হলেন বেনাপোল পোর্ট থানার বড় আঁচড়া গ্রামের খোকনের ছেলে আলী হোসেন। বেলা ৪.১০ সময় বাংলাদেশের ৪৯ ব্যাটালিয়ন এর বেনাপোল আইসিপি কোম্পানি কমান্ডার ও ভারতের ৬৪ বিএসএফর পেট্রাপোল কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে হেড কনষ্টবল শ্রী চৈতান্যকে হস্তান্তর করা হয়। ৪৯ বিজিবি বেনাপোল আইসিপি ক্যাম্পের সুবেদার মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বাংলাদেশে প্রবেশ কারী বিএসএফ সদস্যকে পতাকা বৈঠকের মাধ্যেমে ফেরত দেওয়া হয়েছে।