প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আধুনিকায়ন ও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

32

স্টাফ রিপোর্টারঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় ফায়ার সার্ভিসের আধুনিকায়ন ও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। জাতির জনক বংগবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে সরকার নিরলিসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের ফায়ার সার্ভিস দূর্যোগ মোকাবেলায় সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এ কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ফায়ার সার্ভিসকে যুগোপযোগী করে তুলতে ৬২ হাজার অগ্নিসেনাকে দক্ষ ভলান্টিয়ারের প্রশিক্ষণ দিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে। অগ্নিকান্ড ছাড়াও দেশে যে কোন দূর্যোগপূর্ণ অগ্নিসেনা দল পরিস্থিতিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। বঙ্গবন্ধু ফায়ার একাডেমী প্রতিষ্ঠার কাজ চলছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আগামী জুনে ৫শ’ ৬৭ টি স্টেশন সম্পন হবে। ২০২২ সালে ৭শ’ স্টেশন হবে। মুন্সীগঞ্জে অত্যাধুনিক ফায়ার ফ্যাকাল্টির কাজ চলছে। যা কিনা ২০ তলার উঁচুতে কাজ করতে সক্ষম। নদী মাতৃক দেশ হিসেবে নদী ফায়ার স্টেশনেরও কাজ চলছে। প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশে দেশের সকল উপজেলায় স্টেশন হচ্ছে। অগ্নিসেনাদের বেতন ১৮ থেকে ১৭ তম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে।

পরে মন্ত্রী একযোগে সারা দেশে ফায়ার সার্ভিস সপ্তাহের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন। প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদের শুভেচ্ছা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতীক), স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের (সুরক্ষা ও সেবা) সচিব মো: শহীদুজ্জামান, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন, পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক মেজর জেনারেল শাকিল আহমেদ।

আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো: জসীম উদ্দিন, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের নারায়ণগঞ্জ জোনের উপ-পরিচালক মো: আবদুল্লাহ আল আরেফিন, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও) মমতাজ বেগম।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সকাল সোয়া দশটায় রূপগঞ্জ উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পূর্বাচল স্টেশনে এসে পৌঁছান। পরে বেলুন উড়িয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ ২০১৯ এর উদ্বোধন করেন। এ সময় প্যারেড ও গার্ড অফ অনারের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অভিবাদন জানানো হয়। অগ্নি-দূর্ঘটনা নিয়ন্ত্রনের বিভিন্ন কলা-কৌশলের প্রদর্শন করা হয়।

গত তিন বছরে মানুষের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ কাজের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ১শ ‘৪৪ জনকে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সেবা পদক ও বনানীতে এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড নিয়ন্ত্রনে দায়িত্ব পালনকালে নিহত ফায়ারম্যান সোহেল রানাকে মরণোত্তর পদক প্রদান করেন।