সোনারগাঁয়ে শুরূ হলো স্থপতিদের মিলনমেলা

71

নিজস্ব প্রতিনিধি: এশিয়া মহাদেশের ২১টি দেশের সমন্বয়ে গঠিত আর্কিটেক্টস রিজিওনাল কাউন্সিল অব এশিয়া’র ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দেশ বিদেশের স্থপতিদের মিলন মেলায় পরিনত হয়েছে ঐতিহাসিক সোনারগাঁয়ের পানাম নগরী ও বড় সর্দারবাড়ী। সোমবার রাত ৭টা থেকে শুরূ হওয়া এ আয়োজনে প্রধান অতিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি।

আর্কিটেক্টস রিজিওনাল কাউন্সিল অব এশিয়া’র ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্থপতিদের মহাসম্মেলনটি চীনের সাংহাইতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে এর ভ্যানু হিসেবে বাংলাদেশের ঢাকা বিজয়ী হওয়ায় গত ৩ নভেম্বর বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরূ হয় এ মহাসম্মেলন। সম্মেলনের অংশ হিসেবে গতকাল (৪ অক্টোবর) রাতে সোনারগাঁয়ের ঐতিহাসিক পানাম নগরী ও সদ্য রেজিষ্ট্রেশনকৃত বড় সর্দারবাড়ীতে দেশি বিদেশে স্থপতিতের জন্য আয়োজন করা হয় বিশেষ অনুষ্ঠান। এ উপলক্ষে পানাম নগরী ও বড় সর্দারবাড়িকে মোহনীয় আলোক সজ্জায় সজ্জিত করা হয়। আগত দেশি বিদেশি স্থপতিরা আলো আঁধারের মনোরম পরিবেশে সরোদ এর সুর মুর্চ্ছনায় ঘুরে বেড়ান ঐতিহাসিক এসব স্থাপনায়। স্থাপনা পরির্দশন ছাড়াও স্থানীয় পাঁচজন কারূশিল্পীর শিল্পকর্ম প্রদর্শনের ব্যবস্থাও রাখা হয় অনুষ্ঠানে। বড় সর্দারবাড়ীর সামনে কারূশিল্পীদের ঐতিহ্যবাহী শিল্পকর্মের এ প্রদর্শনী দেখে মুগ্ধ হন আগত বিদেশী অতিথিরা। এছাড়া বড় সর্দারবাড়ীর অভ্যন্তরে অবস্থিত নাচ ঘরে পরিবেশিত হয় মনোজ্ঞ ক্লাসিক্যাল নৃত্য ও সংগীত।

মহাসম্মেলনের কনভেনার স্থপতি আবু সাইদ এম আহমেদ জানান, এশিয়া মহাদেশের ২১টি দেশের সমন্বয়ে গঠিত আর্কিটেক্টস রিজিওনাল কাউন্সিল অব এশিয়া’র ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্থপতিদের মহাসম্মেলন চীনের সাংহাইয়ে করার জন্য প্রস্তাব করেছিল ইনস্টিটিউট অব চাইনিজ আর্কিটেক্টস, বাংলাদেশ মহাসম্মেলন করার জন্য ইচ্ছা পোষন করলে একটি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাংলাদেশ বিজয়ী হয়ে আয়োজক দেশ নির্বাচিত হয়। এ মহাসম্মেলন উপলক্ষে ৩শতাধিক বিদেশি স্থপতির আগত ঘটেছে বাংলাদেশে। সম্মেলনের দ্বিতীয়দিন সোনারগাঁকে বেছে নেয়া হয়েছে। সোনারগাঁ প্রাচীন বাংলার রাজধানী ছিল সেসুবাদে এখানে অনেক প্রাচীন স্থাপত্য নির্দশন রয়েছে এসব স্থাপত্য নির্দশনগুলোকে বিদেশি স্থপতিদের কাছে তুলে ধরাই আমাদের মূখ্য উদ্দেশ্য। এ সম্মেলন শেষে হবে আগামী ৭ নভেম্বর।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্থপতি আবু সাইদ এম আহমেদ, স্থপতি জালাল আহমেদ, সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার, বাংলাদেশ লোক ও কারূশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড আহমদ উল্লাহ প্রমূখ।