নেত্রকোনায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক শিশুর ভাঙা পা রেখে ভালো পায়ে প্লাস্টার

129

ইকবাল হাসান: নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রীতম নামে চার বছরের এক শিশুর ভাঙা পা রেখে ভালো পায়ে প্লাস্টার করে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত বুধবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে খালিয়াজুড়ি উপজেলার চাকুয়া ইউনিয়নের পাথরা গ্রামের পরিতোষ সরকারের চার বছরের শিশু সন্তান প্রীতমের ডান পা ভেঙে যায়। এ অবস্থায় মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতীমকে নিয়ে যান বাবা পরিতোষ। পরে প্রীতমের ভেঙে যাওয়া ডান পা প্লাস্টারের জন্য জরুরি বিভাগে পাঠান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সুবীর সরকার।

কিন্তু জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক তানভীর হাসান উপস্থিত না থাকার সুযোগে শিশু প্রীতমের ডান পায়ের চিকিৎসা করান ওয়ার্ডবয় জামাল মিয়া। সেই সঙ্গে শিশুটির ভাঙা পা রেখে ভালো পায়ে প্লাস্টার করে দেন ওয়ার্ডবয়। পরে শিশুটিকে নিয়ে বাসায় চলে যান বাবা পরিতোষ।

পরে রাতে অবস্থার অবনতি হলে বৃহস্পতিবার সকালে শিশুটিকে নিয়ে মোহনগঞ্জ হাসপাতালে আবার আসেন বাবা। পরে জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে ময়না নামে চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মচারী প্রীতমের ভালো পায়ের প্লাস্টার খুলে ভাঙা পায়ে প্লাস্টার করে দেন।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নুর মোহাম্মদ শামছুর আলম বলেন, শিশুটিকে ভুল চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here