সৈয়দপুরের মালিপাড়ায় ১১ বছর ধরে নারীরাই আয়োজন করছে দুর্গা পূজার

85

শাহজাহান আলী মনন: মন্দিরে পূজার মন্ডপে পূজা অর্চনা, বাদ্যযন্ত্র বাজানো থেকে শুরু করে সকল কাজই করছে নারীরা। এমনকি ওই মন্ডপে দায়িত্বরত ৫ আনসার সদস্যও নারী। এমনই এক দূর্গা পূজা মন্ডপের দেখা মিলেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বাঙালিপুর ইউনিয়নের বৈশ্য মালি পাড়ায়। এ পাড়া এখন যেন পুরুষ শুন্য। তাই নারীরা তাদের পাড়ার দূর্গোৎসবের সব আয়োজন করেছে প্রতিবছরের মত।

ওই পাড়ার নারীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, পুরষরা এখন চলমান শারদীয় দুর্গাপুজায় বিভিন্ন স্থানের মন্ডপে চুক্তিভিক্তিক ঢোল বাজাতে অবস্থান করছে। গত ১১ বছর ধরে গ্রামটিতে শারদীয় দুর্গাপূজার সব আয়োজনে অগ্রনীভুমিকা পালন করছে নারীরা।

সরেজমিনে দেখা যায় গ্রামের নারীরা এবারও দুর্গাপূজার আয়োজন করেছেন। নিজেরাই গড়েছেন প্রতিমা। পুরোহিত, ঢুলি সবাই নারী। সুন্দর সাজসজ্জায় গড়ে তোলা হয়েছে প্রতিমা। মহাঅষ্টমীর দিন দেখা যায়, নারীরাই মন্ডপে ঢাক বাজাচ্ছেন। কেউ কেউ অঞ্জলি আরতি দিচ্ছেন। নারীদের দুর্গাপুজার এমন আয়োজনে সেখানে বিভিন্নস্থান থেকে আগত দর্শনার্থীদের ভীড়ও বেড়েছে।

ওই গ্রামের পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি দীপালি রানী। তিনি বলেন, আমাদের পাড়ায় ৩৫টি পরিবার বসবাস করে। পুরুষ কর্তারা ঢোল বাজাতে সকলে এখন বাহিরে। দুর্গা মন্ডপের সাধারণ সম্পাদক গীতা রানী বলেন, আমাদের স্বামীরা বাঁশের জিনিসপত্র তৈরী করার পাশাপাশি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ঢোল বাজায়। তাঁরা ঢাক বাজানোর জন্য এ সময়টায় নানা জায়গা থেকে আমন্ত্রণ পান। ফলে এ গ্রামের নারীদেরই পূজার সব আয়োজন করতে হয়।

গ্রামটির পূজামন্ডপে আনসার ভিডিপির কয়েকজন সদস্যকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে। তাঁরাও নারী। স্বেচ্ছাসেবকের কাজও নারীরা করছেন।