ডাব পাড়ার অপরাধে যুবককে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে বেঁধে নির্যাতন

147

রুহুল আমিন: নওগাঁর ধামইরহাটে গাছ থেকে ডাব পাড়ার অপরাধে এক যুবককে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। জানা গেছে, সোমবার সকাল ১১টার দিকে ধামইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে দেওয়ান মোঃ মাসুদুর রহমানের গাছ থেকে ডাব চুরি করতে মোঃ ফিরোজ হোসেন (২৪) নামে এক যুবক গাছে ওঠে। মাসুদুর রহমান ওই যুবককে ৫/৬টি ডাবসহ হাতে নাতে আটক করে। পরবর্তীতে ধামইরহাট নওগাঁর সড়কের ডাচ- বাংলা এটিএম বুথের সামনে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে, বুকে আমি ডাব চোর প্লাকার্ড লাগিয়ে তাকে দাঁড়িয়ে রাখা হয়।

এ সময় তাকে দেখার জন্য এলাকার বিভিন্ন মহলের মানুষ ভিড় জমায়। এব্যাপারে দেওয়ান মাসুদুর রহমান মাসুদ বলেন, চুরি করে ডাব পাড়তে দেখে সে ফিরোজকে ধরার চেষ্টা করে। কিন্তু ফিরোজ ধরা না দিয়ে তাকে কাঁদা মাটিতে ধাক্কা মেরে ফেলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে তাকে আটক করে বেঁেধ লজ্জা দেওয়ার জন্য এ ব্যবস্থা নেয়া হয়। আগামীতে সে যেন আর এ ধরণের কাজ না করে। ফিরোজ হোসেন ধামইরহাট পৌরসভার অন্তর্গত দক্ষিণ চকযদু (মাহালীপাড়া) গ্রামের মোঃ তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।স্থানীয় বাসিন্দা আতিকুর রহমান বলেন, চুরি করে থাকলে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা উচিত ছিল তা,না করে এভাবে পাশবিক নির্যাতন কখনো মেনে নেয়ার মত নয়। আমি মনে করি যারা এমনটা করেছে তাদেরও উপযুক্ত শাস্তি দেয়া উচিত।

অন্য বাসিন্দা সাদিকুল ইসলাম বলেন, আমরা ওই ছেলেটাকে উদ্ধার করতে গেলে আমাকে হুমকি দেয়া হয়। বর্তমান সমাজে এমনটা আশা করিনা। অপরাধ করলে আইন তাকে শাস্তি দিবে কিন্তু বৈদ্যুতিক খুঁটিতে বেঁধে এভাবে নির্যাতন মানবাধিকার লঙ্ঘন।

ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাকিরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি শোনার সাথে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। পুলিশ যাওয়ার আগে ওই যুবক কে ছেঁড়ে দেয়া হয়। আইন নিজের হাতে নেয়ার অধিকার কারো নেই। কেউ অপরাধ করলে তাকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সোর্পদ করতে হবে।