ভারতে সম্মাননা পেলেন কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান চিত্রনায়ক সাইমন

42

মোজাম্মেল হক: কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক অভিনীত ‘জান্নাত’ সিনেমাটি গত বছর ঈদুল আযহায় মুক্তি পেয়েছিলো। এই ছবিতে সাইমনের বিপরীতে অভিনয় করেছেন মাহিয়া মাহি। বাংলাদেশের দর্শকের প্রশংসা কুড়িয়ে সিনেমাটি ইতালিসহ বেশ কিছু দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে। ২৪তম মিলান চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নিবে সাইমন-মাহির ‘জান্নাত’। চলতি বছরের ৪ অক্টোবর শুরু হবে ২৪তম মিলান চলচ্চিত্র উৎসব।

তবে এর আগেই চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক এর সাফল্যে যুক্ত হলো নতুন পালক। ‘জান্নাত’ ছবিতে দুর্দান্ত অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ভারতের আগরতলায় পুরস্কৃত হয়েছেন সাইমন সাদিক। গত রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) ত্রিপুরার পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী প্রনজিত সিংহ রায় আনুষ্ঠানিকভাবে সাইমনের হাতে সম্মাননা তুলে দিয়েছেন।

‘জান্নাত’ ছবিতে পথভ্রষ্ট এক যুবকের চরিত্রে সাইমনের অভিনয় দারুণ প্রশংসিত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে তিনি ঠাঁই করে নিয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের সংক্ষিপ্ত তালিকাতেও। মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত এই সিনেমাটি প্রদর্শিত হচ্ছে পূর্বোত্তর ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায় প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব’-এ।

রবীন্দ্রশতবার্ষিকী ভবনে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী এই উৎসবের উদ্বোধক হিসেবে বাংলাদেশ থেকে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক সাইমন সাদিকও অংশ নিয়েছেন। সেখানেই তাকে সম্মাননা দেয়া হয়।

এ উৎসবে যোগ দিতে বাংলাদেশ থেকে রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে আরও ছিলেন পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী, অপর্ণা ঘোষ, অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীসহ ২০ জনের একটি টিম। এই উৎসবে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের মোট ২০টি বাংলাদেশি চলচ্চিত্র দেখানো হচ্ছে।

ভারতে সম্মাননা পাওয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় চিত্রনয়াক সাইমন সাদিক বলেন, ‘যেকোনো সম্মাননা আমাকে অনেক আপ্লুত করে। আগরতলায় এসেছি আমরা রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে। প্রথমবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব হচ্ছে এখানে। অংশগ্রহণ করছি। খুব ভালো লেগেছে। এখানকার দর্শক আমাদের সিনেমার সঙ্গে পরিচিত। আমাদের অভিনয় নিয়ে তাদের ভালো লাগা দেখে মন ভরেছে। আর এই সম্মাননাটুকু ছিলো অনেক বেশি প্রেরণার। এই উৎসবে অংশ নেয়ার সুযোগ করে দেয়ার জন্য আমাদের তথ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে আমি অনেক বেশী কৃতজ্ঞ।’

চিত্রনায়ক সাইমন সাদিকের জন্ম ১৯৮৬ সালের ৩০ আগস্ট কিশোরগঞ্জ সদরের মহিনন্দ ইউনিয়নের কলাপাড়া গ্রামে। বাবা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. সাদেকুর রহমান। মা উম্মে কুলসুম গৃহিনী। তিন বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে সাইমন চতুর্থ। স্কুল জীবনে পড়াশোনা করেছেন কিশোরগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে। পরে ঢাকায়।

পরিচালক জাকির হোসেন রাজুর হাত ধরে চলচ্চিত্রে আগমন ঘটে এই সুদর্শন নায়কের। ২০১২ সালের দিকে আনন্দমেলা চলচ্চিত্রের প্রযোজনা ও জাকির হোসেন রাজুর পরিচালনায় ‘জ্বী হুজুর’ চলচ্চিত্রের নায়ক হিসেবে সাইমনের অভিষেক। তারপর থেকে বাজিমাত করেই চলেছেন তিনি।

বিশেষ করে জাকির হোসেন রাজুর ‘পোড়ামন’ ছবি দিয়ে তিনি আলোচনায় আসেন। পাশাপাশি কেয়া ও মৌসুমি হামিদের বিপরীতে ব্ল্যাকমানি’ ছবিতেও অভিনয় করে প্রশংসিত হন তিনি। তার মুক্তিপ্রাপ্ত অন্যান্য ছবির মধ্যে রয়েছে ‘তোমার কাছে ঋণী’, ‘তুই শুধু আমার’, ‘স্বপ্ন ছোঁয়া’, ‘পুড়ে যায় মন’,‘মায়াবিনী’, ‘জান্নাত’সহ বেশ কিছু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here