নারায়নগঞ্জে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল ফাইনাল অনুষ্ঠিত

57

শাহাদাৎ হোসেন শিপন: ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলায় আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের (বালক অনুর্ধ্ব-১৭) ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফাইনাল খেলায় ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলীর দলকে ২-০ গোলে পরাজিত করে ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সাইফউল্লাহ বাদলের দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের ইসদাইরস্থ ওসামানী পৌর স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে ফাইনাল খেলা শুরূ হওয়ার আগে দর্শক পূর্ণ গ্যালারী কানায় কানায় ভরে যায়। আর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিসহ অতিথিদের মনে একটু আনন্দ দিতে আয়োজকরা মাঠে বিভিন্ন ধরনের বিনোদনের ব্যবস্থা করেন। থিংসং থেকে শুরূ করে নৃত্য সহ গান পরিবেশন করা হয়। পরে প্রধান অতিথি খেলার উদ্বোধন করেন। আর ৫০ মিনিটের খেলায় বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের দলকে ২-০ গোলে পরাজিত করে কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের দল।

ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি নাহিদা বারিকের সভাপতিত্বে ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আরিফ মিহিরের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সাইফউল্লাহ বাদল, বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী, এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরূল আলম সেন্টু, ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান স্বপন, গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নওশেদ আলী, আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মতিউর রহমান, জেলা কৃষক লীগের সাধারন সম্পাদক ইব্রাহিম চেঙ্গিস প্রমুখ।

পুরস্কার বিতরণ পূর্বে প্রধান অতিথি শামীম ওসমান বলেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য যাতে একেবারে গ্রামগঞ্জ থেকে, মহল্লা থেকে আমাদের নতুন প্রজন্ম যারা সুযোগ পায় না তাঁদের মেধাগুলোকে খুঁজে বের করে জাতীয় পর্যায়ে তুলে নিয়ে আসা এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মাথা উচু করে দাঁড়ানো। যেভাবে এখন আমরা ক্রিকেটে দাঁড়িয়েছি এবং অন্যান্য কয়েকটি ইভেন্টে আমরা দাঁড়িয়েছি। আশা করি আগামীতে আমরা ফুটবলেও দাঁড়াব এবং অন্যান্য খেলাধুলাতেও দাঁড়াব।

তিনি বলেন, “বাংলাদেশের নাম হয়তো যারা অনেকেই ওই ভাবে শুনে নাই বঙ্গবন্ধুর নাম শুনেছে। তাঁরাও কিন্তু আজকে যারা ক্রিকেট দেখে তাঁরা বাংলাদেশের ভালো করে চিনে এবং শ্রদ্ধা করে দেখে যে একটি দেশ আছে বাংলাদেশ। সে ক্রিকেটে এই এই ধরনের খেলোয়ার তৈরী করেছে। শামীম ওসমান চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দল ও আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে উভয় দলের খেলোয়ারের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here