নেত্রকোনায় প্রধান শিক্ষক দ্বারা শিক্ষিকা শ্লীলতাহানীর অভিযোগ

49

মোনায়েম খান: জেলার আটপাড়া উপজেলার মোবারকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইকবাল বাহার খানের বিরুদ্ধে তারই অধীনস্থ সহকারী শিক্ষিকাকে শ্লীলতাহানীর শিকার হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে শনিবার ইউএনও বরাবরে শিক্ষিকা লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, জেলার আটপাড়া উপজেলার মোবারকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইকবাল বাহার খান দীর্ঘদিন ধরে একই বিদ্যালয়ের জনৈক শিক্ষিকাকে উত্যক্ত করছিলেন। প্রধান শিক্ষক অঙ্গ ভঙ্গিমায় ও আচার আচরণে বিভিন্ন ভাবে অনৈতিক ইঙ্গিত দিয়ে আসছেন। কিন্তু ভুক্তভোগী প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক আচার-আচরণ ও ইঙ্গিতের প্রতি অনাগ্রহ প্রকাশ করায় ৪ আগস্ট বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে ওই শিক্ষিকা প্রধান শিক্ষকের কক্ষে সংযুক্ত টয়লেটে প্রবেশ করলে প্রধান শিক্ষক তাকে ভিতরে রেখে দরজা লাগিয়ে দেন। শিক্ষিকার ডাক চিৎকারে সহকারী শিক্ষক আলমগীর কবির পাঠান দরজা খুলে বাহির করার ব্যবস্থা করেন। শিক্ষিকা একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক আচরণের বিষয়টি শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকায় ব্যাপক আলোচনার বিষয়বস্তুতে পরিণত হয়েছে। এই ঘটনায় বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমে বিঘ্ন দেখা দিয়েছে এবং অভিভাবকরা তাদের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে অনাগ্রহ প্রকাশ করছেন।

সরেজমিনে মঙ্গলবার বিদ্যালয় এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর উপস্থিতি অত্যন্ত কম। প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক আচরণে ভুক্তভোগী সহকারী শিক্ষিকা আতংক নিয়ে কর্মস্থলে আছেন। অভিভাবক ও এলাকাবাসী প্রধান শিক্ষকের শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দাবী করছেন।

মোবারকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইকবাল বাহার খান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে ওই শিক্ষিকা মিথ্যে অভিযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে আমি কিছু জানি না। আটপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাহফুজা সুলতানা বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।