সৌদি আরবে গৃহকর্মীর কাজে গিয়ে যৌন নির্যাতনের শিকার: দরিদ্র পিতার আকুতি

98

শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী শিপনঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে এক মেয়ে গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরবে গিয়ে পাশবিক যৌন নির্যাতনের শিকার হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দরিদ্র পরিবারের সকলের মুখে হাসি ফুটাতে আড়াই মাস আগে সূদুর সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছিল নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের সাদিপুরের সিংলাব গ্রামের পারভিন আক্তার। স্বপ্নছিল গৃহকর্মীর কাজ করে নিজেকে স্বাবলম্বী করার। অভিযোগ উঠেছে, গৃহকর্মীর কাজে সৌদি আরবে পাড়ি জমানো পারভিন আক্তারকে অব্যাহতভাবে পার্শ্ববিক যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক। এব্যাপারে দ্রুত নির্যাতিত মেয়েকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পিতা সিরাজুল ইসলাম রোববার দুপুরে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকারের মাধ্যমে সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি লিখিত আবেদন করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সাদীপুর ইউনিয়নের সিংলাব গ্রামের হতদরিদ্র পিতার মেয়ে পারভিন আক্তার বাংলাদেশ সরকার ও সৌদি আরব সরকারের সকল নিয়ম কানুন মেনে গৃহকর্মীর কাজ করার জন্য বৈধভাবে ভিসা নিয়ে চলতি বছরের ২ জুন সৌদি আরবের মদিনা প্রদেশে গমন করে। সেখানে যাওয়ার আগে দেশে সে গৃহকর্মী কাজের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। তার পাসপোর্ট নম্বর-বি পি ০০১২৫০৪। ভিসা নম্বর-৬০৫৯৩৮১৬২৮ (তারিখ ৩০.০৪.২০১৯)। পারভিন আক্তার পিতার অভিযোগ, দরিদ্র পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে অনেক আশা নিয়ে তার মেয়ে সুদূর সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছিল। সেখানে একটি ধনী পরিবারে গৃহকর্মী হিসেবে যোগদান করার কিছুদিনের মধ্যে তার মেয়ে তাকে মোবাইল ফোনে জানান যে, ওই পরিবারের প্রধান গৃহকর্তা ও তার ছেলে প্রতিনিয়ত তার উপর পার্শ্ববিক নির্যাতন চালাচ্ছেন। শারীরিক নির্যাতন চালানোর পাশাপাশি যৌন নির্যাতন চালাচ্ছেন। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় জলন্ত সিগারেটের আগুন দিয়ে তারা তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে ছ্যাকা দিয়েছে ও গভীর ক্ষত তৈরি করেছে।

তিনি কান্নাবিজরিত কন্ঠে বলেন, আমার মেয়ে সৌদি আরবে প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। তার অবস্থা আশংকাজনক। তাকে জীবিত অবস্থায় দেশে ফিরিয়ে আনতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাচ্ছি। সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার বলেন, গৃহকর্মীর কাজে সৌদি আরবে গমন করে সোনারগাঁওয়ের এক মেয়ে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন বলে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। এক ব্যক্তি নির্যাতনের শিকার তার মেয়েকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনতে তার মাধ্যমে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সহযোগিতা চেয়ে আবেদনটি করেছেন। আবেদনটি দ্রুত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here