দ্বিতীয় বার দুর্ঘটনায় হার মানলো পাপিয়া

88

অলোক কুমার আচার্য্য: জীবনের প্রথম সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণে বেঁচে গেলেও দ্বিতীয় বার আর বাঁচতে পারেনি পাপিয়া (৯)। মৃত্যুর সাথে লড়াই করে অবশেষে বিদায় নিয়েছে সে। পাপিয়ার বাড়ি পাবনার বেড়া পৌরসভার স্যান্নাল পাড়া গ্রামে।

গত বুধবার বিকেলে কোরবানির গোশত নানা নানীকে দেয়ার উদ্দেশ্যে বেড়া থেকে সিএনজিতে বাঘাবাড়ী যাওয়ার সময় সাঁথিয়ার পাটগাড়ি এলাকায় পিছন থেকে ঢাকাগামী একটি কোচ পেছন থেকে ধাক্কা দিলে পাপিয়ার সাথে থাকা তার বাবা পান্নু (৪৫), মা কাজলী (৩৫) ও পাপিয়ার এক ছোট বোন ও দাদী আহত হয়। স্থানীয়রা প্রথমে সবাইকে উদ্ধার করে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এর মধ্যে পাপিয়া ও তার দাদীর অবস্থা সংকটাপন্ন হলে তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে পাপিয়ার মৃত্যু ঘটে। বছর পাঁচেক আগেও ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পরে পাপিয়া। তবে সে যাত্রায় তার প্রাণ না গেলেও পাপিয়ার একটি পা মারাত্বক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সে মানিক মিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।