রায়পুরে মাতৃছায়া হাসপাতাল ভাংচুর: স্বজনদের অভিযোগ ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু

68

মো: আবদুল কাদের: লক্ষ্মীপুরের রায়পুর মাতৃছায়া হাসপাতালে ভূল চিকিৎসায় আলী হায়দার (৬০) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মাতৃছায়া হাসপাতাল ভাংচুর করেছে বিক্ষুব্ধ স্বজনরা।

সোমবার (২২ জুলাই) রাত ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হায়দার রায়পুর উপজেলার রাখালিয়া গ্রামের হাবিব উল্ল্যা ছেলে ও স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। নিহত রোগীর স্বজনরা জানায়, বিকেল ৩ টার দিকে স্থানীয় মরকম আলী সর্দার বাড়ীর সামনের দোকানে চা পান করছিলেন আলী হায়দার। এসময় হঠাৎ মাটিতে লুটে পড়েন তিনি। পরে তাকে উদ্ধার করে রায়পুর মাতৃছায়া হাসপাতালে ভর্তি করান স্বজনরা।

হাসপাতালের চিকিৎসক সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন রোগীর ডায়রিরয়া রোগ নির্নয় করে চিকিৎসা দেন। পরে রোগীর অবস্থার অবনতি হলে চাঁদপুর ডায়রিয়া হাসপাতালে রেফার করা হয়। তাকে চাঁদপুর ডায়রিয়া হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে নিহতের বিক্ষুব্ধ স্বজনরা মরদেহ নিয়ে রায়পুরের মাতৃছায়া হাসপাতালে এসে ভাংচুর চালায়।

রোগীর স্বজন মোঃ হারুন জানান, স্ট্রোকের রোগীকে ডায়রিয়ার চিকিৎসা দেয়ায় আলী হায়দার মারা গেছেন। লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের সদস্য মামুন বিন জাকারিয়া বলেন, গতকাল আলী হায়দারের ডায়রিয়া হয়েছিল কিন্তু আজ তার কোন ডায়রিয়া ছিলনা, সে সুস্থ্য ছিল এবং দুপুরে সে চায়ের দোকানে চা পান করছিল। ওই সময় সে স্ট্রোক করে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। মাতৃছায়া হাসপাতালের ডাক্তার রোগীর স্ট্রোকের বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে গতকালের ডায়রিয়ার কথা শুনে তিনি ডায়রিয়ার চিকিৎসা দেন।

স্ট্রোকের রোগীকে ডায়রিয়ার চিকিৎসা দিলে এর কারনে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ করাটা কি অন্যায়? এ ব্যাপারে হাসপাতালের ব্যবস্থাপক তুহিন চৌধুরী সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে তার ফেইজবুকে দেওয়া তথ্যে জানা যায়, আলী হায়দার নামে এক ডায়রিয়া রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে তাকে ১ ঘন্টা যাবত প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চাঁদপুর ডায়রিয়া হাসপাতালে পাঠানো হয়। রাতে হঠাৎ এম্বুলেন্স নিয়ে ১০/১৫ জন লোক এসে হাসপাতাল ভাংচুর করে।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ তোতা মিয়া জানান, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ এনে স্বজনরা হাসপাতালে ভাংচুর চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here