চান্দিনার মাইজখার ইউনিয়ন তিন ভাগে বিভাজন প্রস্তাব

93
আকিবুল ইসলাম হারেছঃ কুমিল্লা চান্দিনার সর্ববৃহৎ মাইজখার ইউনিয়নকে ভেঙে ৩ ইউনিয়ন ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করার প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। এর ফলে চান্দিনা উপজেলা ১৩ ইউনিয়ন থেকে ১৫ ইউনিয়নে গঠিত হবে।
মাইজখার ইউনিয়ন নাম বহাল রেখে নবগঠিত ইউনিয়ন দুটির নামকরণ করা হয়েছে বামনীখোলা ইউনিয়ন ও পানিপাড়া ইউনিয়ন। গত বৃহস্পতিবার চান্দিনায় মাসিক আইন শৃংখলা ও সমন্বয় সভায় এ ব্যাপারে ইউনিয়ন বিভাজন প্রস্তাবনা লিপি সাবেক ডেপুটি স্পিকার ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মো.আলী আশরাফ এমপি’র কাছে জমা দেন মাইজখার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শাহ সেলিম প্রধান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তপন বকসী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম জাকারিয়া, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাঈমা ইসলাম, চান্দিনা পৌরসভার মেয়র মোঃ মফিজুল ইসলাম, চান্দিনা থানা পুলিশ পরিদর্শক( তদন্ত) মোঃ আসাদুজ্জামান,  চান্দিনা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার হাজী আব্দুল মালেক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ জহিরুল ইসলাম মুন্সী, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাফিয়া আক্তার।
প্রস্তাবনায় চান্দিনা উপজেলার বদরপুর,মাইজখার,ফাঐ,আওরাল,সালুচর,পটনই,আলীকামোড়া,
এওয়াজবন্দসহ ৮টি গ্রাম নিয়ে মাইজখার ইউনিয়ন পুনর্গঠন করে প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে। যার ভোটার সংখ্যা ১১ হাজার ২৮২ জন।
একই প্রস্তাবনায় মেহার,জিরুআইশ,বামনীখোলা, রসুলপুর,কাশারীখোলা,বল্লারচর,বীরখাল,সিংআড্ডাসহ ৮টি গ্রাম নিয়ে বামনীখোলা ইউনিয়ন গঠন করা হয়। যার ভোটার সংখ্যা ধরা হয়েছে ১২ হাজার ১৯৬ জন।
অপরদিকে উপজেলার আওধাতা,করতলা,কামারখোলা, মাধারপুর,ভাকসার,পানিপাড়া,হাড়িপাড়া, কালেমসার, টামটা ও ভোমরকান্দিসহ ১০ টি গ্রাম নিয়ে পানিপাড়া ইউনিয়ন গঠন করে প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে। যার ভোটার সংখ্যা ধরা হয়েছে ১১ হাজার ২৫৯ জন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস.এম. জাকারিয়া বলেন, নবগঠিত প্রতিটি ইউনিয়নের বর্তমান ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড এর আওতায় থাকবে।আগামী আদম শুমারীতে ওয়ার্ড ভিত্তিক জনসংখ্যার তালিকা তৈরির কাজ শুরু করা হবে। প্রজ্ঞাপন ঘোষণার পর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় দ্রুত প্রশাসনিক নিয়োগসহ অন্য কার্যক্রম শুরু করবেন।