বট গাছের ডাল ভেঙ্গে ৩ টি দোকানের ৪ লাখ টাকার ক্ষতি আহত-৫

133

মাসুদ রানা: সিরাজগঞ্জ উল্লাপাড়া উপজেলায় ১৭ জুলাই সন্ধা ৭ টার সময় ঝড় বৃষ্টি ছাড়াই পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নে সলপ রেলষ্টেশন বাজারে, ষ্টেশন মাষ্টারের ঘরের পিছনে ১০০বছর পুরানো বিশাল বটগাছের ডাল ভেঙ্গে ৩ টি দোকান ঘরের উপর পরে।এতে দোকান ঘর ৩টি ভেঙ্গে যায় এবং দোকান মালিকদের প্রায় ৪ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আহত হয়েছে ৫ জন।

সরকার ভ্যারাইটি ষ্টোরে প্রায় ২লাখ টাকা,সিফাত ফল ভান্ডারে প্রায় ৭০হাজার টাকা,মজনু মিষ্ট্যান্ন ভান্ডারে প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার টাকার মালামাল ক্ষতি হয়েছে। আতঙ্কে আছে ঐ বটগাছের নিচে অবস্থিত আরোও ৫০ টি দোকান মালিকরা।আকাশে সামান্য ঝড় বা বৃষ্টি দেখা দিলে দোকান মালিকরা দোকান বন্ধ করে অন্যত্র চলে যান।

দোকান ফেলে, চলে গেলে চুরির আশঙ্কা,ভিতরে থাকলে মৃত্যুর আশঙ্কা। এতে তাদের দেখা দিয়েছে উভয় সংকট। জীবনের ঝুকি নিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন তারা।

দোকাকান মালিক মুক্তা সরকার বলেন আকাশে ঝড় বৃষ্টি ছাড়াই বটগাছের ডাল ভেঙ্গে আমার দোকানের উপরে পড়ে টিন ও সার্টার ধুমরে মুচরে যায়।এতে আমার দোকানের ২ লাখ টাকার মালামাল নষ্ট হয়েছে। আমার শরীরে তিন স্থানে ক্ষত এবং আমার গোমস্তা মোঃ তরিকুল ইসলামে দুই জায়গায় ক্ষত হয়েছে।সিফাফ ফল ভান্ডারের মালিক মোঃ আব্দুর রহমানের দোকানের উপর পরে বটগাছের ডাল সহ টিন ভেঙ্গে পরে গুরুত্ব আহত হয়।ঐ ঘরে থাকা তার বাবা মোঃ সরোয়ার হোসেন মেম্বরও আহত হন। মিষ্ট্যান্ন ভান্ডারের মালিক মজনু সরকার গুরুত্বর আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় ক্লিনিকে চাকিৎসা দেওয়া হয়েছে। দোকান মালিক ও প্রত্যক্ষ দর্শিরা জানান যদি ডালের ভাঙ্গ অংশ মুলগাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হতো, তাহলে ২০টি দোকান চুরমার হয়ে যেত এবং মানুষ মারা যাওয়ার সম্ভাবনাও ছিল। এর আগে ২৪ জুন এই বট গাছের ডাল ভেঙ্গে মোঃ আলমাহমুদ,জাহাঙ্গীর আলম,ছানোয়ারের দোকান ভেঙ্গে প্রায় ৩ লাখ টাকার মালামালের ক্ষতিসহ ৩ জন গুরুত্বর আহত হয়েছিল। ঐ রেস কাটতে না কাটতেই আজ বুধবার সন্ধায় ঘটে গেল একই দুর্ঘটনা।

বটগাছের নিচে মোঃ কামরুলের ঔষুধের দোকান,মোঃ আব্দুল জব্বারের মুদির দোকান, মোঃ সাদ্দাম টেলিকমের দোকান ডাক্তার প্রদীপ কুমারের ঔষুদে দোকান,ডাক্তার মোঃ সোহেল রানার ঔষুদের দোকান, মোঃ আল মাকমুদের খাবার হোটেল,মোঃ মজনুর মুদির দোকান,নিতাই এর সেলুন,মোঃ আরিফ হোসেনের চা স্টল এ সব দোকান মালিক, বেশি ঝুকির মধ্যে আছে।যখন তখন ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। মৃত্যুর ঝুকি আছে জেনেও জীবনের তাগিদে দোকান্দারী করছে দোকান মালিকরা।

এ বিষয়ে পঞ্চক্রোশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলাম ফিরোজ জানান সলপ রেলষ্টেশনে শুধু আমাদের ইউনিয়নের সাধারন মানুষের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়।এখানে প্রতিদিন বিভিন্ন উপজেলার শত শত মানুষ ভীর করে ঘোল খাওয়া ও ঘিঁ নেয়ার জন্য। একই গাছের ডাল ভেঙ্গে অল্প সময়ের ব্যবধানে দুই বার দুর্ঘটনা ঘটলো এবং দোকান মালিকেরা গুরুত্বর আহত হয়েছে। জীবনের ঝুকি নিয়ে প্রায় ৫০ টি দোকান মালিক ব্যবসা করছেন। এমতাবস্থায় পুরাতন বট গাছটি কাটা খুবই প্রয়োজন। আমি রেলওয়ের পশ্চমাঞ্চলের কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করবো, ঝুকি পূর্ণ এই পুরানো বটগাছটি দ্রুততম সময়ের মধ্যে কাটার জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here