উল্লাপাড়ায় ট্রেন-মাইক্রো সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১ জন

345

মাসুদ রানা: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নে সলপ ষ্টেশন বেতকান্দি অরক্ষিত রেলক্রোসিংয়ে মাইক্রো-আন্তঃনগড় ট্রেন সংঘর্ষে বর কনে সহ ১১ জন বরযাত্রীর মৃত্য হয়েছে।

আজ ১৫ জুলাই ৬. ৪০টার সময় পদ্মা এক্সপ্রেস আন্তঃ নগড় ট্রেন রাজশাহী থেকে ঢাকা উদ্দেশ্য যাচ্ছিল এমন সময় উল্লাপাড়া গুচ্ছগ্রাম থেকে বিয়ের করে বর কনে সহ বরযাত্রী বোঝাই একটি মাইক্রো সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়াকান্দাপাড়া যাওয়ার পথে সলপ ষ্টেশন বেতকান্দি এলাকায় অরক্ষিত রেলক্রসিং আসলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে বর কনেসহ ৯ বরযাত্রীর মৃত্য হয়।আহত হন ৪ জন।নিহত বর মোঃ রাজন(২৫) কনে মোছাঃ সুমাইয়া খাতুন (২২), খাঁ পাড়া গ্রামের মোঃ আলতাফ হোসেন(৫৫),তার ছেলে মোঃ আজম আলী(২২), কামারখন্দের জামতৈল গ্রামের মন্টু শেখের ছেলে মাইক্রো চালক মোঃ স্বাধীন(২৮) এর নাম পরিচয় যানা গেছে। আহত ৩ জনকে আশঙ্কা জনক অবস্থায় সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মোঃমাসুদ রানার ছেলে মোঃ ইমরান(১৭) সলপ রেলষ্টেশনে মওলা ডাক্তারের ঘরে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

শাহিকোলা গ্রামের শাহাদৎ মাষ্টার জানান রেলগাড়ী ও মাইক্রো থামানো অবস্থায় মাইক্রোর ভিতর থেকে ৭ জন ও রাস্তায় ২ জনের লাশ উদ্ধার করে একজায়গায় স্তপ করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় কালিয়াকান্দাপাড়া বাজার এলাকার খাঁ পাড়া গ্রামের একটি মাইক্রো বোঝাই বরযাত্রী নিয়ে দুপুরে উল্লাপাড়া পৌর এলাকার গুচ্ছগ্রামে বিয়ে করতে যায়। বিকেলে বিয়ের কাজ শেষ করে কনেকে নিয়ে বর ও বরযাত্রী নিজ বাড়ী কালিয়া কান্দাপাড়া খাঁ পাড়া গ্রামে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সলপ রেলক্রসিংয়ে সংঘর্ষ মাইক্রোটি টেনেহিচরে প্রায় ১/২কিঃমিঃ উত্তরে শাহিকোলা গ্রামে নিয়ে গিয়ে আন্তঃনগড় ট্রেনটি বন্ধ হয়ে থেমে যায়।

সংঘর্ষের ঘটনা নিশ্চিত করে উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ দেওয়ান কউশিক আহম্মেদ জানানা রাজশাহী থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আাসা পদ্মা আন্তঃনগড় ট্রেনে সাথে বরযাত্রী বোঝাই মাইক্রোর সংঘর্ষে ৯ জনের ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আহতদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরো ২ জনের মৃত্য হয়।