যে কারনে কুমিল্লায় আদালতে খুন হল ফারুক

1003
নূরুল আলম আবিরঃ কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ফাতেমা ফেরদৌসের এজলাসের খাসকামরায় এক আসামি অপর আসামিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছেন। ছুরিকাঘাতে নিহত হওয়া যুবকের নাম ফারুক হোসেন (২৭)। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আসামি আপন ফুপাতো ভাই আবুল হাসানকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার  বেলা সাড়ে ১১ টার সময় কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতে এমন চাঞ্চল্যের ঘটনা ঘটে। নিহত আসামী ফারুক কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলার অহিদুল্লাহর ছেলে। সে একজন রাজমিস্ত্রি ছিলেন। অপর আসামী ঘাতক হাসান লাকসাম উপজেলার শহীদুল্লাহর ছেলে।
জানা গেছে, কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতে এজলাস চলাকালীন সময়ে  কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলায় সংঘটিত হত্যা মামলায় স্বাক্ষী প্রদানকালে ওই মামলার  আসামী হাসান অন্য আসামী ফারুককে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে।  এতে ঘটনাস্থলেই আসামী ফারুক মারা যায়। ঘাতক হাসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
এই আদালতের পিপি জহিরুল ইসলাম সেলিম সাংবাদিকদের বলেন, “জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলায় ২০১৩ সালের ২৬ অগাস্টের এক হত্যা মামলার আসামি হাসান ও ফারুক হাজিরা দিতে কুমিল্লার এই আদালতে আসেন। তারা আপন মামাত-ফুফাত ভাই। নিজেদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আদালত কক্ষেই আসামি হাসান অপর আসামি ফারুককে ছুরিকাঘাত করেন। আহত ফারুককে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে ফারুক সেখানে মারা যান।”  হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত  ছুরিটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here