সিলেটে কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

197
কে এম রায়হান:সিলেটে টানা বর্ষন ও পাহাড়ি ঢলের কারণে কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।  এতে বালাগন্জ বাজার সহ বিভিন্ন ইস্কুল,মাদ্রারা ও বিভিন্ন গ্রামে ঢুকে পরেছে বন্যার পানি। এতে প্রায় ১০ হাজার লোক এখন পানি বন্দি।হাজার ও পরিবার বন্যার পানিতে আক্রান্ত।টানা বৃষ্টি ও নদীর পানিবৃদ্ধি অব্যাহত থাকার কারনে নদীর তীরবর্তি সবকটি ইউনিয়নের প্রায় ১০ হাজার লোক পানি বন্দি হয়ে পরেছে।এতে ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ায় চরম দূর্ভোগে পড়েছেন এসব গ্রামের লোকজন।উপজেলার পূর্বগৌরিপুর ও পূর্বপৈলনপুরের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন করেছেন বালাগন্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজমুস সাকিব,সহকারি ভূমি কমিশনার সুমন চন্দ্র দাশ।পূর্বপৈলনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি কালজয়ী প্রতিনিদি জানান,আমি পুরো ইউনিয়ন পরিদর্শন করেছি। ইউনিয়নের সবাই পানি বন্দি। তিনি আরো জানান এ এলাকায় কুশিয়ারা ডাইকের উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়ায় ডাইকটির প্রান্ত ভেঙে দ্রত পানি বৃদ্ধি হয়েছে।নদী তীরবর্তী বাসিন্দারা খুবই কষ্টে দিনাতিপাত করতেছেন।সবকটি ছোট বড় রাস্তা পানিতে তলিয়ে গেছে।বালাগন্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নাজমুস সাকিব বলেন,কুশিয়ারা নদীর পানি ১ দশমিক ৫ সেন্টি মিটার বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।উপজেলার প্রায় ১০ হাজার লোক পানি বন্দি।হাজার ও পরিবার বন্যার পানি আক্রান্ত।