ইংল্যান্ডের সামনে সহজ আত্মসমর্পণ অজিদের

97
আসিফ আহমেদ তন্ময়: বিশ্বকাপে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বার্মিংহামে অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। এ ম্যাচে অজিদের আট উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে স্থান করে নিয়েছে স্বাগতিকরা।
বিশ্বকাপের সেমিতে কখনোই না হারা অজিদের এদিন শুরু থেকে চাপে ফেলে দেয় ইংলিশ পেসাররা। মাত্র ১৪ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় এ্যারন ফিঞ্চের দল। দলকে খাদের কিনারা থেকে টেনে তোলার দায়িত্ব নেন স্টিভ স্মিথ ও ক্যারি। দুজনে মিলে চতুর্থ উইকেট জুটিতে যোগ করেন ১০৩ রান। এই জুটি অজিদেরকে বড় স্কোরের স্বপ্ন দেখাতে থাকলে তাতে বাধ সাধেন আদীল রশীদ।  ক্যারিকে ৪৬ রানে ফিরিয়ে তিনি এ জুটি যবানিকা পাত ঘটান। এরপরের গল্পটা শুধুই স্মিথের একা লড়াই করে যাওয়ার। নিঃসঙ্গ নাবিকের মত অজি ব্যাটসম্যানদের যাওয়া আসার মিছিলে বুক চিতিয়ে দাড়িয়েছিলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এ ব্যাটসম্যান। তিনি যখন ৮৫ রান করে রান আউটে কাটা পড়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তখনই মিটে যায় অজিদের পুরো ওভার খেলার স্বপ্ন। তাইতো এক ওভার বাকী থাকতেই ২২৩ রানে অল আউট হয় অষ্ট্রেলিয়া।
প্রথম সেমিফাইনালে ভারতের মত ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে কোন ভুল করেনি ইংলিশ ওপেনাররা। শুরু থেকেই দুই ওপেনার রয় ও বেয়ারেস্টো হাত খুলে খেলতে থাকেন। মূলত অজিদের ফাইট ব্যাকের স্বপ্ন একাই ধসিয়ে দেন ঝড়ো ৮৫ রান করা জেসন রয়। রয় ফিরে গেলেও রুট ও মরগ্যানের অপরাজিত ৪৯ ও ৪৫ রানের সুবাদে ১০৭ বল বাকী রেখেই বড় জয় নিশ্চিত করে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। তিন উইকেট শিকার করে ম্যাচ সেরা হন ইংলিশ পেসার ক্রিস ওকস। আগামী ১৪ তারিখ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড। এ ম্যাচে যে দলই জিতুক না কেন ক্রিকেট বিশ্ব পেতে যাচ্ছে নতুন চ্যাম্পিয়ন।