কক্সবাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া দেয়ার পরিকল্পনা

173
সোহেল মোহাম্মদ মুবিন: কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ৩৪টি আশ্রয়শিবিরের প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী বসবাস করছে।আশ্রয় নেয়া এসব রোহিঙ্গারা অনেক সময় ক্যাম্প থেকে বেরিয়ে আসছে। তাদের কারণে স্থানীয় মানুষের কাজের সুযোগ সীমিত হয়ে পড়ছে। পাশাপাশি নানা অপরাধেও জড়াচ্ছে আশ্রিত রোহিঙ্গারা। তারা যাতে ক্যাম্প থেকে বেরোতে না পারে, সেজন্য ক্যাম্পের সীমানায় কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের পরিকল্পনা চলছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।
২৭ জুন চট্টগ্রামের ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন নেটওয়ার্কের (বিপিডব্লিউএন) অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, নাফ নদী পেরিয়ে লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। মানবতার খাতিরে আমরা তাদের জায়গা দিয়েছি। এখন আমরা রোহিঙ্গাদের নিয়ে চ্যালেঞ্জের মুখে আছি।
অল্প সময়ের মধ্যে যে এতো রোহিঙ্গা আসবে, সেটি আমাদের ধারণার বাইরে ছিল। ধারণা থাকলে আগে থেকে একটা ব্যবস্থা নেয়া যেত। তার পরও আমরা ক্যাম্পের সীমানায় কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের চেষ্টা করছি, যাতে তারা ক্যাম্প থেকে বের হতে না পারে। তাদের কারণে আমাদের জীববৈচিত্র্যের ক্ষতি হচ্ছে। স্থানীয় মানুষের কর্মপরিধি কমে গেছে।
২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইনে সেনা অভিযানের ঘটনায় ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে আসতে থাকে রোহিঙ্গারা। নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নিতে থাকে তারা। ওই অভিযানের পর নতুন করে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা। তাদের আশ্রয় দিতে গিয়ে বড় ধরনের ক্ষতি হয়েছে বনের।