গোপালগঞ্জে শিশুর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন চিকিৎসক

172

আবির খান আশিক: গোপালগঞ্জে তামিম মাহমুদ নামে সাড়ে ৪ বছরের এক শিশুকে সুন্নতে খতনা করতে গিয়ে পুরুষাঙ্গে কিছু অংশ কেটে ফেলেছেন এক চিকিৎসক। পরে ওই শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে। গোপালগঞ্জ শহরের কলেজ মসজিদ সড়কের ডা. হাফেজ মাহফুজুর রহমানের মালিকানাধীন জিম ক্লিনিকে এই ঘটনা ঘটে।

শিশুটি শহরের আরামবাগ এলাকার তারেক মাহমুদের ছেলে। ছেলেটির বাবা বলেন, আজ সকাল ১০টায় তার শিশুকে সুন্নতে খতনা করা জন্য জিম ক্লিনিকে আনা হয়। সাড়ে দশটার দিকে শিুশুটিকে সুন্নতে খতনা দেওয়ার জন্য অপারেশন থিয়েটারে নেন। তখন ওই চিকিৎসক আমার ছেলের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেন।

পরে শিশুটিকে মুমূর্ষ অবস্থায় গোপালগঞ্জ জেনারেল মেডিকেল হাসাপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকাপ্টারে করে ঢাকা নেওয়া হয়।

গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের সহকারি অধ্যাপক (সার্জারি) অনুপ কুমার মজুমদার জানিয়েছেন, পুরুষাঙ্গের কাটা অংশ সংরক্ষণ করে ওই শিশুকে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার জন্য তার পরিবারকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। দ্রুত মাইক্রো সার্জারি করাতে পারলে এটি ভালো হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

অভিযুক্ত চিকিৎসক হাফেজ মাহফুজুর রহমান জানিয়েছেন, এটি একটা দুর্ঘটনা। শিশুকে সুন্নতে খতনা দেওয়ার সময় সে হাত-পা ছোড়াছুড়ি করার ফলে এমনটি ঘটেছে।