অর্ধকোটি টাকা নিয়ে এনজিও উধাও

231

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে ভিজিডি সুবিধাভোগীদের সঞ্চয়ের প্রায় অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে এক এনজিও। সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পাবার আশায় দিন গুনছেন দরিদ্র মানুষগুলো। জানা গেছে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে উপজেলার ৩৫৬১ জন ভিজিডি সুবিধাভোগীর প্রত্যেকের নিকট থেকে মাসিক দু’শ টাকা করে দুই বছরের সঞ্চয় উত্তোলনেৃর দায়িত্ব পায় সমাজ উন্নয়ন কার্যক্রম (সুক) ও এডিএস নামক দুটি এনজিও।

এডিএস পাথরডুবি, ভূরুঙ্গামারী, জয়মনিরহাট, পাইকেরছড়া ও বলদিয়া ইউনিয়নের সুবিধাভোগীদের সঞ্চয়ের টাকা সংগ্রহ করে এবং মেয়াদান্তে সঞ্চয়কৃত টাকা ফেরত দেয়। অপর দিকে সমাজ উন্নয়ন কার্যক্রম (সুক) শিলখুড়ি, তিলাই, চর ভূরুঙ্গামারী, আন্ধারীঝাড় ও বঙ্গ সোনাহাট ইউনিয়নের প্রায় ১ হাজার ২শ ১১ জন সুবিধাভোগীর ২৪ মাসের সঞ্চয়ের টাকা সংগ্রহ করে। সংগৃহীত সঞ্চয়ের কিছু টাকা ব্যাংকে জমা করে বাকি টাকা নিয়ে সটকে পড়ে। যার পরিমান প্রায় অর্ধকোটি টাকা।

শিলখুড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসেন ইউসুফ জানান, প্রায় প্রত্যেক দিন ৫০/৬০ জন করে সুবিধাভোগী ইউনিয়নে পরিষদে সঞ্চয় ফেরত চাইতে এসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। এনজিও টাকা না দিলে ইউনিয়ন পরিষদ কিভাবে টাকা ফেরত দেবে।

সমাজ উন্নয়ন কার্যক্রম (সুক) ম্যানেজার আবু সাইদের বক্তব্য জানতে তার মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জিন্নাত আরা জানান, সুবিধাভোগীদের সঞ্চয়ের টাকা ব্যাংকে জমা না করার বিষয়টি এনজিওর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। ব্যাংকে টাকা জমা হলে সুবিধাভোগীদের সঞ্চয় ফেরত দেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগফুরুল হাসান আব্বাসী জানান, মন্ত্রণালয় এনজিও দুটিকে সঞ্চয় উত্তোলনের দায়িত্ব দেয়। সঞ্চয়ের টাকা ব্যাংকে জমা করার নিয়ম থাকলেও অভিযুক্ত এনজিও সুক নিয়ম অনুযায়ী কাজ করেনি। সুবিধাভোগীদের সঞ্চয়ের ফেরত দেয়ার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।