স্কুলছাত্রীর ইজ্জতের মুল্য ৫০ হাজার টাকা

173

মিজানুর রহমান: বরগুনার তালতলীতে স্কুলছাত্রীর ইজ্জতের মুল্য ৫০ হাজার টাকা ধার্য্য করা হয়েছে।দফতরী কর্তৃক স্কুলের ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে রবিবার রাতে স্থানীয় ইউপি সদস্য মাইনুদ্দিনের নেতৃত্বে এক বৈঠকে এ টাকা ধার্য্য করা হয়।

জানা গেছে, উপজেলার হেলেঞ্চা বাড়ীয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শনিবার সকালে কয়েক জন ছাত্রীরা স্কুলে আসে।ওই স্কুলের দফতরী হেলেঞ্চা বাড়ীয়া গ্রামের হারুন আকনের পুত্র মো. তানভীর হোসেন ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ডেকে স্কুলের ছোট্ট একটি রুমে নিয়ে আটকিয়ে জোড় পূর্বক ধর্ষন করে।

ওই ছাত্রীর সহ পার্টিরা দেখে এদিক সেদিক কানা ঘুষা করতে করতে ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পরে।এলাকায় ঘটনাটি জানা জানি হলে স্থানিয় ইউপি সদস্য মাইনুদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে শনিবার রাতে তার বাড়ীতে বসে স্থানীয় মোফাজ্জাল শরীফ, জাকির হোসেন ও চান মিয়া হাওলাদার মিলেদ ফতরীমো. তানভীর হোসেনকে জুতা পেটাও স্কুলছাত্রীর ইজ্জতের মুল্য হিসেবে ৫০ হাজার টাকা ধার্য্য করেন।

রবিবারও ইস্কুল ছাত্রীর বাবা জাহাঙ্গীর হোসেন হাওলাদার দফতরী তানভীর হোসেনের বিচারের দাবীতে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী মনিরুজ্জামান রিপন ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবু সিদ্দিক মাস্টার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবু সিদ্দিক মাস্টার বলেন, ঘটনাটি ওই ছাত্রীর কাছে জিজ্ঞাসা করলে সে লজ্জায় সংকোচিত হলে তার বাবা জাহাঙ্গীর হোসেন হাওলাদার ঘটনার সত্যতা স্বীকারে তানভীরের কঠোর বিচার দাবী করেন।প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী মনিরুজ্জামান রিপনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।