শরীয়তপুরের সেফটি ট্যাংকের ভেতর পড়ে দুজনের মৃত্যু

81
এস, এম, স্বাধীন: ১৪ জুন ২০১৯ শুক্রবার দুপুরের দিকে শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের পাঁচক গ্রামের সালাউদ্দিন গোরাপির বাড়ির নির্মাণাধীন সেফটি ট্যাংকির ভিতরে পড়ে দুইজন মারা যান এবং অসুস্থ  অবস্থা তিনজনকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে আনা হয় এর মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর  তাই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।
নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত (ওসি) একেএম মঞ্জুরুল হক আকন্দ জনান শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সালাউদ্দিন গোরাপির বাড়িতে নবনির্মিত  সেপটিক ট্যাংকের ভেতর সেন্টারিংয়ের কাঠ খুলতে নামেন শাহাদাৎ গোরাপি (২০)। তখন তিনি আহত হন। শাহাদাৎকে উদ্ধার করতে ট্যাংকিতে নামেন আজিজুল বাঘা (৩৫), রুবেল গোরাপি (২৫), অপু গোরাপি (২৬) ও তারেক খান (১৭) । তখন তারাও গুরুতর আহত হয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা ট্যাংকির একাংশ ভেঙে তাদের উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন ।  কর্তব্যরত চিকিৎসক নড়িয়া উপজেলার পাচক গ্রামের শাহ আলম গোরাপির ছেলে শাহাদাত গোরাপি (২০) এবং একই গ্রামের লিটন খানের ছেলে তারেক খান (১৭) কে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
আলি বাঘর ছেলে আজিজুল বাঘার অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।আজেদ ঘোড়াপীর ছেলে রুবেল গোরাপি শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি আছে এবং অপু গোরাপিকে  প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here