ধুনটে শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের আল্টিমেটাম

100

ইমদাদুল হক ইমরান: বগুড়ার ধুনটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষার দাবীতে স্বেচ্ছাসবকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা প্রশাসনকে ৩দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছে। বুধবার দুপুরের দিকে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক হেদায়তুল ইসলাম ও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন লিখিত ভাবে এ বিষয়টি ইউএনওকে জানিয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলা পরিষদের পুকুর পাড়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি প্রায় ৩৫ বছর আগে নির্মাণ করা হয়। এটি ধুনট উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার হিসেবে পরিচিত। এখানে ২১ ফেব্রুয়ারী আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস ও ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, সাংবাদিক, রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, বুদ্ধিজীবিসহ বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষ মহান ভাষা আন্দোলন এবং স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদের স্মৃতির স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও দোয়া কামনার মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। দিবসগুলোর দুই এক দিন পূর্বে শহীদ মিনার প্রাঙ্গন পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করলেও বাকি দিনগুলোতে অযত্মে-অবহেলায় পড়ে থাকে।

এদিকে শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে মাইক্রোবাস ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার স্ট্যান্ড গড়ে উঠেছে। এসব পরিবহনের যাত্রী ও চালকেরা শহীদ মিনারের উপর জুতা পায়ে বসে থাকেন। বর্তমানে শহীদ মিনারটি যাত্রী বিশ্রামাগার হিসেবে ব্যবহার করছে। শহীদ মিনারের পাশে পুকুরে বাজারের ময়লা আর্বজনা ফেলা হয়। এতে করে দূর্গন্ধে সেখানকার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। শহীদ মিনারের উত্তর পাশে আগাছা জন্মে ভুতুড়ে পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। অযতেœ-অবহেলায় শহীদ মিনারের মর্যাদা ক্ষুন্ন হচ্ছে।

এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন বলেন, শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষার দাবীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আবেদন করেছি। এ বিষয়ে ৩দিনের মধ্যে প্রশাসন ব্যবস্থা না নিলে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষনা করা হবে।

এ বিষয়ে শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কলামিষ্ট রেজাউল হক মিন্টু বলেন, শহীদ মিনারের মূল বেদিতে জুতা নিয়ে ওঠায় নিষেধাজ্ঞা থাকলেও পরিবহনের যাত্রী ও চালকেরা সেটা মেনে চলছে না। এ মর্যাদা যদি রক্ষা করা না হয়, তাহলে শহীদদের আত্মত্যাগের মূল্যায়ন হবে না। শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষার জন্য সবাইকে এগিয়ে আসা উচিত।

ধুনট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিয়া সুলতানা বলেন, উপজেলা পরিষদের সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষায় আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here