যেখানে মুজিবুল হক সেখানেই মানুষের ঢল!

80
নূরুল আলম আবির: কুমিল্লা-১১ আসন চৌদ্দগ্রামের তুমুল জনপ্রিয় সাংসদ, সাবেক সফল রেলপথ মন্ত্রী জনাব মোঃ মুজিবুল হক এমপি যেখানেই যান, সেখানেই মানুষের ঢল নামে। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে সাবেক রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক এমপি তাঁর গ্রামের বাড়ি চৌদ্দগ্রামের শ্রীপুর ইউনিয়নের বসুয়ারায় আসেন। উদ্দেশ্য একটাই— নিজ নির্বাচনী এলাকার মানুষের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়, সাধারণ মানুষের সুখ-দুঃখের কথা শোনা এবং তার পাশাপাশি তাদেরকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা। তিনি এমনই একজন জনপ্রতিনিধি যিনি দলমত নির্বিশেষে প্রায় সবার মন জয় করেছেন। তিনিই এ এলাকার সাধারণ মানুষের হৃদয় সিংহাসনে আসীন একমাত্র অপ্রতিদ্বন্দ্বী মহারাজা। তিনি কয়েকদিন ধরে এলাকায় অবস্থান করছেন। তিনি গরীব, অসহায় মানুষসহ নিজ দলের কর্মীদের ঈদের বকসিস্ প্রদান করছেন হাসিমুখেই। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার বিকেলে সাবেক রেলপথ মন্ত্রীর গ্রামের বাড়ি বসুয়ারায় গিয়ে নিজ চোখে দেখলাম সাধারণ মানুষের প্রতি এই জনদরদী নেতার অকৃত্রিম ভালোবাসার নিদর্শন। সাবেক মন্ত্রীর সামনে পেছনে, চারপাশে অগণিত অজস্র মানুষের ভীড়। তিনি যেখানেই হেঁটে যাচ্ছেন, সেখানেই একটা বড়সড় মিছিল হয়ে যাচ্ছে। সত্যি তিনি এ এলাকায় আওয়ামী রাজনীতির এক মহাকাব্য রচনা করে চলেছেন।
সাবেক রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক এমপি এক সময়ের অবহেলিত চৌদ্দগ্রামকে রূপান্তরিত করেছেন একটি মডেল ও আধুনিক চৌদ্দগ্রামে। মোঃ মুজিবুল হক এমপি দুইবার রেলপথ মন্ত্রী, একবার ধর্ম মন্ত্রী এবং একাধিকবার সংসদে হুইপ নির্বাচিত হন। একাধিক বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে তিনি নিজ এলাকা চৌদ্দগ্রামে ঈর্ষণীয় ও বৈপ্লবিক উন্নয়ন করেছেন। চৌদ্দগ্রামের হৃদয়জুড়ে এখন শুধু মুজিবুল হকেরই উন্নয়ন চোখে পড়ে। স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তিনি গড়ে দিয়েছেন একাধিক বহুতল ভবন। রাস্তা-ঘাট, পুল-কালভার্ট, মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান, ঈদগাহসহ সকল ক্ষেত্রেই তিনি করেছেন বৈপ্লবিক উন্নয়ন। তিনি অসাধারণ হয়েও সাধারণ ও গরীব-দুঃখী মানুষকে ভালোবেসেই করে যাচ্ছেন মানবসেবা। এজন্যই সাবেক সফল রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক এমপি যেখানেই যান, সেখানেই মানুষের ঢল নামে। তাই খুব সহজেই আমরা বলতে পারি— মুজিবুল হক মানেই চৌদ্দগ্রাম আর চৌদ্দগ্রাম মানেই মুজিবুল হক।
সাবেক সফল রেলপথ মন্ত্রীর সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়সহ সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন— চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সোবহান ভূঁইয়া হাসান, চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়র এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদের সদস্য ভিপি ফারুক আহমেদ মিয়াজী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এবিএম এ বাহার, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও ইউপি চেয়ারম্যান শাহ জালাল মজুমদার, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক তৌফিকুল ইসলাম সবুজসহ উপজেলা ও ইউনিয়নের নির্বাচিত আওয়ামী লীগের সকল জনপ্রতিনিধি এবং আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here