ঈদের সাহায্য আনতে গিয়ে মেয়রের সামনেই হতদরিদ্র নারী লাঞ্চিত!

183

সিলেট প্রতিনিধি: পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সাহায্য আনতে গিয়ে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবনে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সামনেই অফিস সহকারিদের হাতে দুই হতদরিদ্র নারী লাঞ্চিত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার লাঞ্চনার শিকার হতদরিদ্র নারীদের ছবি সহ বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে সিটি মেয়র আরিফুল হক নেটিজেনদেও নানা মুখী সমালোচনার মুখে পড়েন।

সোমবার দুপুর ১২ টা ১৯মিনিটে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী কার্যালয়ে মেয়র কথা বলছিলেন সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাহাত চৌধুরী মুন্নার সাথে একটি টিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিলের চেক নিয়ে।ওইসময় মেয়রের নিকট থেকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের সাহায্য নিতে মেয়রের কামড়ায় ঢুকে পড়েন এক বয়স্ক বয়োবৃদ্ধা হতদরিদ্র বিধা বৃদ্ধা নারী ও সাথে থাকা অপর এক নারী। মেয়রের কামড়ায় থাকা মেয়রের অফিস সহকারিরা ধমকিয়ে অনেকটা লাঞ্চিত করেই জোর করে বের করে দেন ওই হতদরিদ্র নারীদের।

এরপরও ওই নারীরা সাহায্য পাবার আশায় মেয়রের কামড়ার সামনে দ্বীর্ঘক্ষণ বসে থাকার পর এক সংবাদকর্মীর মেয়েরের কামড়ায় প্রবেশের পর পেছনে পেছনে ফের তারাও মেয়রের কামড়ায় প্রবেশকরেন। এরপর অনেকটা বিরক্তি প্রকাশ করে সিটি মেয়র সংবাকর্মীর সামনেই ওই দুই নারীর উদ্দেশ্যে টেবিলের ওপর ছুড়ে দেয়া ঈদের সাহায্য হিসাবে বিশ টাকা করে দিয়ে বিদেয় করেন। এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সিলেট নগরীতে থাকা এমনকি দেশের নানা শ্রেণীপেশার লোকজন সিটি মেয়র আরিফের সমালোচনায় এক হাত নেন।

সোমবার বিকেলে এ বিষয়ে সিটি মেয়র আরিফুল হকের বক্তব্য জানতে উনার ব্যাক্তিগত মুঠোফোনে (০১৭১১-৯৬৭০৩০) কল করা হলে শাহেদ নামের এক জন মেয়রের পাড়ার ভাই পরিচয় দিয়ে ফোন কল রিসিভ করে বললেন মেয়র সাহেব পাড়ায় একটি মিটিং এ ব্যস্ত। নগর ভবনে দুই নারীর ঈদুল ফিতরের সাহায়্য নেয়ার প্রসঙ্গতি অবহিত করে মেয়রের বক্তব্য জানতে চেয়ে ফোনটি মেয়রকে দেয়ার অনুরোধ করলে শাহেদ নামের ওই ব্যক্তি ‘‘না না এসব ভুয়া’’ বলেই মুঠোফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here