উল্লাপাড়া রামকান্তপুর মাঠে চলছে লাখ লাখ টাকার জুয়া খেলার আসর

130

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া রামকান্তপুর মাঠে প্রকাশ্যে চলছে লাখ লাখ টাকার জুয়ার আসর। দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে প্রকাশ্যে এমন কর্মকান্ড, অথিষ্ট হয়ে উঠেছ এলাকা বাসী। বিভিন্নে কারনে রয়েছে এলাকার মানুষ নিরব। উল্লাপাড়া মডেল থানা হতে কোয়ার্টার কিলোমিটার পুর্বে রামকান্তপুর খেয়া ঘাটের দক্ষিনে করতোয়া নদীর পাশে পাট ক্ষ্যাতের মাঝে টোং ঘর তুলে চালাচ্ছে জুয়ার আসর।

এ বিষয়ে জেলার সকল প্রশাসন রয়েছে নীরব। উপজেলার পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নের রামকান্তপুর খেয়াঘাটের পাশে মাঠের মধ্যে চলছে জুয়া খেলার আসর। এই মাঠে করতোয়া নদীর পাশে টোং ঘর তুলে প্রকাশ্য চলছে লাখ লাখ টাকার জুয়া খেলা। প্রতিদিন দুপুরবেলা থেকে শুরু করে চলে মধ্যরাত পর্যন্ত এই জুয়ার আসর। উল্লাপাড়া, বেলকুচি, কামারখন্দ, চৌহালী, জামতৈল, এনায়েতপুর, চৌবাড়ি,শাহজাদপুর,সিরাজগঞ্জ, সায়দাবাদ,নাটোর,এলাংগা,তাড়াশ, বাঘাবাড়ী,ফরিদপুরসহ বিভিন্ন এলাকার শতশত জুয়ারু হুন্ডা,সিএনজি ও মাইক্রো নিয়ে এখানে জুয়া খেলতে আসে। এই জুয়ার স্পটটি এখন ওপেন সিক্রেট। জুয়ারু ময়েন,শাহ আলম,জাহাংগীর সাথে কথা বলে জানা যায় এখানে প্রায় তিন মাস হলো জুয়া খেলছি কোন দিন প্রশাসনের ঝামেলা হয়নি। তাছাড়া সামনে নদী, চরের মধ্য ফাকা জায়গা ঝামেলা মনে হলে নদী সাতরে ওপার উঠলে ধরে কে? এ জন্যই জায়গাটা নিরাপদ।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন উল্লাপাড়ার আদর্শ গ্রামের জিন্নাহ আলী,রামকান্তপুর গ্রামের আব্দুল করিম,আব্দুল মান্নানসহ আরোও কয়েক জন মিলে এই জুয়া খেলা চালাচ্ছেন। রামকান্তপুর করতোয়া নদীর পাশে হাশেম আলীর কৃষি জমি ভাড়া নিয়ে সেখানেই জুয়ার আসর চালানো হচ্ছে। প্রতিদিন বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জুয়ারুরা এখানে জুয়া খেলতে এসে নিঃস্ব হয়ে খালি হাতে ফিরে যাচ্ছে।

রামকান্তপুর গ্রামের একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা বলা হলে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই উল্লেখিতরা দীর্ঘদিন ধরে জুয়ার আসর চালাচ্ছে। আমরা এর প্রতিবাদ করতে গেলেই উল্টো আমাদের পাল্টা হুমকি দেওয়া হয়। এবং বলেন প্রশাসনকে ভীট দিয়েই আমরা নির্বিগ্নে খেলছি।আমরা দ্রুত এই জুয়ার আসরটি বন্ধের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

জুয়ার আসর প্রসঙ্গে কথা হলে উল্লাপাড়া আদর্শগ্রামের জিন্নাহ আলী জানান আমি এই জুয়ার আসর চালাই না। মাঝে মধ্যে খেলতে যাই। তবে তিনি এ নিয়ে কোন সংবাদ না প্রকাশ করার জন্য অনুরোধ করেন।