আশুলিয়ায় সৎ বাবার সহযোগিতায় তরুণীকে গণধর্ষণ: আটক ৫

129

তৌকির আহাম্মেদ: সাভারের আশুলিয়ার জিরাবো এলাকায় সৎ বাবার সহযোগীতায় এক তরুণীকে গণধর্ষণ করেছে বখাটেরা। এঘটনায় সৎ বাবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। ভুক্তভোগী নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ এই তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে ভোর রাতে আশুলিয়ার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন, পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানার চরখালী গ্রামের মৃত জব্বার হাওয়ালাদারের ছেলে মো. সজিব হাওলাদার, রংপুর জেলার কাওনিয়া থানার গদাই গ্রামের ওসমান শেখের ছেলে মামুন শেখ, বরিশাল জেলার কোতায়ালী থানর হিজলা গ্রামের গগন আলীর ছেলে নুরে আলম, গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি থানার হরিনাথপুর গ্রামের মো. আমিরুল ইসলামের ছেলে হাবিব। এছাড়া সৎ বাবা তাইজুল ইসলামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লহপুর থানার পশ্চিমখামার দশলেী গ্রামের বাসিন্দা।

ভুক্তভোগীর স্বামী জানান, গত দুইদিন আগে স্ত্রীকে আশুলিয়ার কাঠগড়ায় সৎ শশুর তাইজুল ইসলামের বাসায় রেখে আমি তিনদিনের জন্য নারায়নগঞ্জে কাজে যাই। পরে খবর পেয়ে আমি ছুটে আসি। আমি দোষীদের কঠিন শাস্তি চাই।

আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ জানান, রবিবার দুপুরে খালার অসুস্থতার কথা বলে তরুণীকে কৌশলে সৎ বাবা তাইজুলের সহযোগিতায় জিরাবো এলাকায় নিয়ে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে তাকে গণধর্ষণ করে ৪ বখাটে। এঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। পরে সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে কাঠগড়া ও জিরাবো এলাকা থেকে আসামীদের আটক করা হয়। আটককৃত আসামীদের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।