খামারের দূষিত পানি অপসারণ নিয়ে সংঘর্ষে আহত-৪

131

মোঃ হামিদুর রহমান: শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার সীমান্তঘেষা বারোমারী এলাকার শেকেরকুড়া গ্রামে ২২ মে বুধবার সকালে দেলুয়ার হোসেনের পোল্ট্রি খামারের বর্জ্যরে পানি অপসারণ নিয়ে এক সংঘর্ষে ৪ ব্যক্তি আহত হয়েছে। আহতরা হলো- শেকেরকুড়া গ্রামের মৃত হুরমুজ আলীর তিন ছেলে-শফিকুল ইসলাম (২৫), সাইফুল ইসলাম (৩৮),শহিদুল ইসলাম (২২) ও একই গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে রেজাউল করিম (৩০)। দুইজন প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহন করে বাড়িতে আছেন শহিদুল ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম। পরে আহতদের উদ্ধার করে নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, প্রায় এক বছর পূর্বে সাইদুলের বাড়ির উজানে রাস্তার পাশের   একই গ্রামের প্রতিবেশী দেলুয়ার হোসেন তার বাড়িতে একটি পোল্ট্রি খামার গড়ে তুলেন। সাইদুলের বাড়ি ভাটির দিকে হওয়ায় সব সময় পোল্ট্রি খামারের মুরগীর বিষ্ঠা ও বর্জ্যরে দুর্ঘন্ধ লেগেই থাকে।

বুধবার সকালে খামার মালিক দেলুয়ার হোসেন বর্জ্যরে দুর্ঘন্ধযুক্ত পানি মেশিন দিয়ে সেচ দিতে এলে সাইদুলের ছোট ভাই সাইফুল তাদের পুকুরের পানি দূষিত হওয়ার আশংকায় পানি সেচ দিতে বাধা প্রদান করেন। এসময় দুই পক্ষের বাক-বিতন্ডার একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বাধে।

এতে খামার মালিক দেলোয়র হোসেন, ওয়াজেদ আলী, জয়নাল আবেদীন বেধরক মারপিট শুরু করে। এসময় শফিকুল ও রেজাউল সামান্য আহত হলেও শহিদুল ও সাইফুল লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত হয়।

পরে প্রতিবেশি ও স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। এ ঘটনার পর পোল্ট্রি খামার মালিক দেলুয়ার ও তার লোকজন পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে পোড়াগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আজাদ মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।