রবিবার থেকে নীলফামারীতে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ঘোষণা

79

শাহজাহান আলী মনন: তিন দফা দাবিতে নীলফামারী জেলা পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ এর ডাকে রবিবার থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। ২৭ এপ্রিল শনিবার বিকালে সৈয়দপুর বাস টার্মিনালে বিক্ষোভ মিছিল শেষে এ ঘোষণা দেয়া হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন নীলফামারী জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি শাহনেওয়াজ হোসেন শানু, জেলা বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আখতার হোসেন বাদল ও কার-পিকআপ-মাইক্রোবাস ও ট্যাংকলরি মালিক সমিতির সভাপতি এরশাদ হোসেন পাপ্পু এবং কার-মাইক্রো-পিকআপ শ্রমিক ইউনিয়নের সৈয়দপুর উপকমিটির সম্পাদক মানিক মিয়া।

এসময় বক্তারা জানান, সকল মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন ইজিবাইক, ব্যাটারী চালিত রিক্সা, নসিমন, করিমন, পাগলু চলাচলে সরকারীভাবে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তারপরও নীলফামারী জেলাসহ উত্তরাঞ্চলের প্রায় প্রতিটি সড়ক-মহাসড়কে এসব চলাচল করছে দেদারছে। এসব বন্ধ করতে হবে। সে সাথে সুদূর নরসিংদী থেকে জলঢাকা হয়ে ডোমার-দেবীধস-ডিমলা রুটে বিআরটিসি বাস চলছে। এতে করে সড়ক পরিবহন শিল্প একেবারে ধ্বংসের মুখে পতিত হয়েছে। এই বিআরটিসি বাসও বন্ধ করতে হবে। তাছাড়া দিনাজপুরের চম্পাতলী, রংপুরের তারাগঞ্জের বালুবাড়ি এবং রংপুৃর সদরের হাইওয়ে পুলিশ কাগজপত্র চেকিংয়ের নামে চাঁদাবাজী তথা হয়রানী করছে। এ হয়রানী বন্ধ করতে হবে।

উপরোক্ত তিন দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে গত ২৫ এপ্রিল মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ সংবাদ সম্মেলন করে পরের দিন ধর্মঘট করেছিল। কিন্তু পরের দিন গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে দিনাজপুর মটর শ্রমিক ইউনিয়ন এর বাস চালক জালাল উদ্দিনকে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় চলমান শ্রমিক ধর্মঘট এর পরিপ্রেক্ষিতে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জরুরী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ ও নিহতের পরিবারকে যথাসাধ্য ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস দেন। এই আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন এর নেতৃবৃন্দ।কিন্তু তিন দফা দাবি আদায় না হওয়ায় আবারও অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দিলো সংগঠনগুলো। ২৭ এপ্রিল শনিবার (আজ) রাত ১২ টার মধ্যে উপরোক্ত দাবি মেনে না নিলে রবিবার সকাল ৬টা থেকে ধর্মঘট শুরু হবে।