হাতের নাগালেই মিলছে দাহ্য পদার্থ,যেকোন সময় দূর্ঘটনার আশঙ্কা

24
রাসেল হোসাইন: নীতিমালা লঙ্ঘন করে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ার বিভিন্ন বাজারের মোড়ে মোড়ে যত্রতত্র বিক্রি হচ্ছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম (এলপি) গ্যাসের সিলিন্ডার, পেট্রলসহ দাহ্য পদার্থ। ফলে যেকোনো সময় বিস্ফোরণ ও প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে। অনুমোদিত পেট্রলপাম্প ছাড়া পেট্রলজাতীয় দাহ্য পদার্থ বিক্রির বিধান নেই। কিন্তু তা উপেক্ষা করে শহরের বাইরে গ্রাম এলাকার মোড়ে মোড়ে এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের পাশাপাশি জারিকেন ও বোতলে পেট্রলসহ দাহ্য পদার্থ বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন মুদি, হার্ডওয়্যার ও টিভি ফ্রিজের দোকানেও মিলছে এলপি গ্যাস। সরেজমিনে দেখা গেছে, সাটুরিয়া সদর, দরগ্রাম বাজার, তিল্লি বাজার, গোপালপুর বাজার, ছনকা বাজার, দিঘুলীয়া বাজার, পাকুটিয়া বাজারসহ প্রভৃতি এলাকায় এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে। এমনকি সাটুরিয়া থানার প্রবেশমুখে বৈদ্যতিক ও হার্ডওয়্যার পণ্যের দোকানের বাইরে এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার রেখে বিক্রি করা হচ্ছে। এ ছাড়া উপজেলার ধানকোড়া ইউনিয়নের নয়া ডিঙ্গি বাজার, হরগজ বাজারের মোড় প্রভৃতি এলাকায় মুদি ও রকমারি দোকানে পেট্রলের পাশাপাশি দাহ্য পদার্থ বিক্রি করা হচ্ছে। এসবের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা না করায় দিন দিন বেড়ে চলেছে দোকানের সংখ্যা। কোমল পানীয়র বোতলে ভরে পেট্রল বিক্রি করা হচ্ছে। এসব দোকানের পেট্রল ক্রেতাকে অনেক দোকানি চেনেন না বা জানেন না। এটি খুবই বিপজ্জনক। দুষ্কৃতদের হাতে পেট্রল চলে যেতে পারে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে মানিকগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের পরিদর্শক মো: শামীম হোসেন বলেন, সাটুরিয়ায় অনুমোদিত পেট্রলপাম্প রয়েছে একটি। অবৈধভাবে পেট্রল ও এলপি গ্যাস বিক্রয়কারীদের তালিকা আমার কাছে নেই। মানিকগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা খন্দকার জান্নাতুল নাঈম বলেন, সড়কের ধারে সাজিয়ে রেখে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করা খুবই বিপজ্জনক। ফায়ার ও বিস্ফোরক লাইসেন্স ছাড়া দাহ্য পদার্থ বিক্রি করা নিষেধ। এ ছাড়া যত্রতত্র পেট্রল বা দাহ্য পদার্থ বিক্রির কারণে ভয়াবহ অগ্নিকা-সহ প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে। আমরা নিয়মিত জনসচেতনতা মূলক মহড়া দিয়ে থাকি। জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছা: নাছরিন পারভীন বলেন, দাহ্য পদার্থ বিক্রির সুনির্দিষ্ট বিধিমালা আছে। যত্রযত্র বিক্রির কোনো সুযোগ নেই। এ ধরনের কর্মকান্ডে জড়িত থাকলে তাঁদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here