মেধাবীদের ঢাবিতে জালিয়াতদের ঠাই নাই

58
ঢাবি প্রতিনিধি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) জালিয়াতি করে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থায়ী বহিষ্কারসহ তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার দুপুর ১২ টায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এ মানববন্ধন  অনুষ্ঠিত হয়। গত কয়েক বছরে অন্তত অর্ধশত শিক্ষার্থী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভর্তি জালিয়াতি করে ভর্তি হয়েছেন বলে জানায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।এ ঘটনার অনেকের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। বর্তমানে এ মামলার তদন্ত করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি। শিগগিরই আদালতে এই মামলার চার্জশিট দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্লা নজরুল ইসলাম। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) এজিএস এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন,জালিয়াতির মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া সকলের ছাত্রত্ব বাতিল এবং প্রশাসনিক ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। শুভবোধের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে অন্যায়ের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখাতেই হবে। ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক অাখতার হোসেন বলেন,কিছু শিক্ষার্থী দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। জালিয়াতদের তালিকা তৈরী,  বর্তমান অবস্থা, নাম-পরিচয়-ছবি সংগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরছে। গতকাল এফবিএসের ১০ জন জালিয়াতের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অনুষদের ডীনের কাছে একটি স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে।পর্যায়ক্রমে সব অনুষদেই জালিয়াতদের তালিকা প্রদান করা হবে। ব্যবস্থা গ্রহনে পূর্বাপর সব ধরনের সহযোগিতা করতে অামরা প্রস্তত। মানববন্ধনে তারেক নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা জানি জালিয়াতি করে যারা ভর্তি হয়েছে তারা কারা। যারা ভর্তি জালিয়াতি করে ভর্তি হয়েছে, তারা প্রশাসনকে কোন তোয়াক্কা করছে না। তারা একটি সংগঠনের সমর্থন নিয়ে চলছে। আমরা প্রশাসনের কাছে দাবি জানাচ্ছি, যেন তাদেরকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়।’ জালিয়াত বিরোধী অান্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক অাসিফ মাহমুদ জানান,অামার সিদ্ধান্ত নিয়েছি,জালিয়াতদের বহিস্কারের জন্য প্রশাসন, প্রতিটি অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধান সহ ডাকসু নেতৃবৃন্দকে স্মারকলিপি প্রদান করব।এসব লিগ্যাল একশনগুলো নেয়ার পর ক্যাম্পাসে জালিয়াতদের ছবিসহ ব্যানার, লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে জনমত গড়ে তুলা এবং জালিয়াতদের সামাজিকভাবে বয়কট এর আহ্বান জানাবো। এসবের পরও যদি প্রশাসন কোন সিদ্ধান্ত না নেয় তাহলে সবাইকে নিয়ে আন্দোলনের ডাক দেব। মেধাবীদের পাঠশালায় জালিয়াতের ঠাই নাই, মেধাবীদের ঢাবিতে জালিয়াতদের ঠাই নাই, জালিয়াত চক্রের কালো হাত, ভেঙে দাও গুড়িয়ে দাও, চিটিং বাটপার জালিয়াত এই মুহূর্তে ঢাবি ছাড়’ ইত্যাদি লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ডে  প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here