ভোলার মনপুরার ঐতিহ্য মহিষের দুধের কাঁচা দধি

390

মোঃ শফিকুল ইসলাম বাবু :

মহিষের দুধের দধি দ্বীপ জেলা  ভোলার মনপুরার মহিষের কাঁচা দইয়ের সুনাম রয়েছে দেশ ব্যাপী। এ টক দধি গুড়,মিষ্টি অথবা চিনি দিয়ে খাওয়া হয়। এছাড়া মুড়ি, খৈ, চিড়া দিয়েও খাওয়া যায়। সামাজিক, পারিবারিক ভোজে ও জুড়ি মেলা ভাড় এ দইয়ের।

প্রায় ৪০ বছর ধরে দইয়ের ব্যাবসায়ী সুনিল চক্রবর্তী বলেন, মহিষের দুধের দধি তৈরিতে তেমন কোনো ঝামেলা নেই।দুধ জাল বা সোধন করতে হয় না। শুধু কাঁচা দুধটা চেকে মাটির পাত্র (টালি)পরিস্কার করে দুধ  ঠেলে দিলেই দুই তিন দিন পর হয়ে যায় দধি। এ দধি প্রতিদিন ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হয়। পারিবারিক ভাবে দধির ব্যাবসা পরিচালনা করার মনপুরা হাজিরহাট বাজারে কয়েকটি দোকান রয়েছে।

জসিম দধি ভান্ডারের শহীদ কেরানী বলেন,সাধারণত দেড় থেকে দুই কেজি ওজনের দধির (টালির)  চাহিদা বেশি। দেড় কেজি ওজনের দধির টালির দাম ১৫০ টাকা আর দুই কেজি ওজনের দধির টালির দাম ২০০ টাকায় বিক্রি হয়।এ দধি থেকে মাখন,ঘি ও ঘোল বানানো হয়। মাখনের কেজি ৮০০ টাকা আর ঘি এর কেজি ১২০০ টাকা ধরে বিক্রি হয়। তবে দুধের দাম বাড়লে সবকিছুর দামই বাড়ে।

মনপুরা থানার অফিস ইনচার্জ ফোরকান আলী হাওলাদার বলেন,ভোলা জেলার মনপুরা থানার মহিষের দধি খুবই স্বস্হ্যসম্মত।এ দধি খেয়ে কেউ অসুস্থ হয়েছে বলে কখনো শুনিনি। তবে এ দধির নাম রয়েছে সারা বাংলাদেশে। সবাই এক নামে জানে ভোলার মহিষের দধি।