স্মরণ করছি ছাত্রলীগের প্রায় অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীদের!

125

কালজয়ী রিপোর্ট: আজ ৮-ই ফেব্রুয়ারী, শহীদ ফারুক দিবস।২০১০ সালের আজকের রাতটি ছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ইতিহাসের জঘন্যতম বর্বরোচিত কাল অধ্যায়। স্বাধীনতাবিরোধী জামাত-শিবিরের পেতাত্মারা একযোগে সশস্ত্র হামলা চালায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল আবাসিক হলে। সে রাতে জামাত-শিবিরের ক্যাডারদের মূল টার্গেট ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কর্মী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের মেধাবী ছাত্র ফারুক হোসেনকে কুপিয়ে নৃশংসভাবে খুন করে লাশ শাহ্ মখদুম হলের পেছনের ম্যানহোলে ফেলে রাখে।

শ্রদ্ধাবনত চিত্তে স্মরণ করছি, ছাত্রলীগের শহীদ ফারুক হোসেন ভাইকে।

স্মরণ করছি, আসাদ ভাইকে, মাথায় শিবির ক্যাডারদের হাতুড়ির আঘাতে যিনি অন্ধত্ব বরণ করেছেন।

স্মরণ করছি, বাংলা বিভাগের সাইফুর রহমান বাদশা ভাই, ব্যবস্থাপনা বিভাগের ফিরোজ ভাইকে যাদের নির্মমভাবে হাত-পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়।

স্মরণ করছি, সেদিনের হামলায় আহত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের প্রায় অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীদের।

আপনাদের ত্যাগ আর রক্তের বিনিময়ে আজ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠিত, আমাদের অবস্থান আজ সুসংহত।

এই নৃশংস ঘটনায় প্রত্যক্ষভাবে জড়িত থাকায় যুদ্ধাপরাধী জামাতের নেতাদের নামে মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলায় অধিকাংশ যুদ্ধাপরাধীদের গ্রেফতার করা হয়। জেলে এই মামলায় আটক অবস্থাতেই যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয়। ফলে আজকের এই দিনটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক এবং তাৎপর্যপূর্ণ।

শহীদ ফারুক ভাইয়ের প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি। এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাই।

গোলাম রাব্বানীর ফেসবুক থেকে …………..

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here