৫ টাকার লোভ দেখিয়ে শিশুকে ধর্ষণ করলো বৃদ্ধ!

59

শাহজাহান আলী মনন:

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে মাত্র ৫ টাকা লোভ দেখিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে গিয়ে এক শিশুকে ধর্ষণ করেছে দাদার বয়েসী এক বৃদ্ধ। ২ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের ঘোনপাড়া গ্রামে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক পলাতক রয়েছে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের দিনমজুর পিতা-মাতার ৮ বছর বয়েসী শিশু কন্যা রাফিয়া (ছদ্মনাম) কে বিগত কয়েক দিন থেকে বিরক্ত করছিল তার প্রতিবেশী মৃত. নিজাম উদ্দিনের ছেলে কাল্টু মামুদ (৫০)। ঘটনার দিন দুপুর ১২টার দিকে রাফিয়ার বাবা কিশোরগঞ্জে এবং মা আলু ক্ষেতে কাজ করতে গেলে সে সুযোগে ৫ টাকার কয়েন দেয়ার কথা বলে কাল্টু মামুদ শিশুটিকে নিজের ঘরে ডেকে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তাকে ধর্ষণ করে। দুপুর ২টার দিকে রাফিয়ার মা আফরোজা বেগম বাড়িতে আসলে দেখতে পায় তার মেয়ে বিছানায় শুয়ে কাঁদছে এবং রক্তাক্ত অবস্থায় রয়েছে। তখন সে কান্নার কারণ জানতে চাইলে শিশুটি তার মায়ের কাছে বিস্তারিত খুলে বলে।

এর পর আফরোজা বেগম ঘটনার সাথে জড়িত কাল্টু মামুদকে কোথাও না পেয়ে তাৎক্ষনিক রাফিয়াকে নিয়ে কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়। সেখান থেকে দায়িত্বরত চিকিৎসক বিষয়টি থানায় অবগত করলে পুলিশ হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে রাফিয়াকে নীলফামারী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন-উর-রশিদ জানান, থানা সূত্রে আমরা বিষয়টি জানতে পেরেছি এবং মেয়েটির ফরেনসিক রিপোর্ট নেয়ার জন্য নীলফামারী সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

আফরোজা বেগম জানান, কিছুদিন থেকেই ধর্ষক কাল্টু মামুদ আমার মেয়েটিকে নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছে। এ কারণে আমরা তাকে ইতিপূর্বেও শাসিয়েছি। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ৫ টাকার কয়েন দিয়ে মেয়েটিকে ফুসলিয়ে নিজের ঘরে নিয়ে গিয়ে সে শেষ পর্যন্ত অকাম করেই ফেলেছে। এখন সে পলাতক রয়েছে। এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here