‘যৌনতা’ নিয়ে ফের আলোচনায়-তসলিমা নাসরিন

126

অনলাইন ডেস্ক:

হায় হায় কই যাই! বাঙ্গালিরা সেক্সিজমের অর্থ জানে না। গতকাল একটি ফটো পোস্ট করেছি ফেসবুকে। ওই ফটোটি ২০০৪ সালের, আমি যখন আমেরিকার হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেলোশিপ করি তখনকার। ল্যাংডন স্ট্রিটে, যেখানে আমার ফ্ল্যাট ছিল, সেখান থেকে বেরিয়ে হার্ভার্ডের কেনেডি স্কুলে যেখানে আমার অফিস ছিল, একদিন যাচ্ছি, দেখি হার্ভার্ড ল কলেজের সামনের ফুটপাতে লেখা ‘সেক্সিজম স্টিল একজিস্ট’। খুব পছন্দ হলো লেখাটি, সঙ্গে সঙ্গেই বসে পড়লাম লেখাটির পাশে। আমার সঙ্গে যে ছিল, সে লেখাটির সংগে আমার একটি ফটো তুলে নিল। এটিই সেই ফটো।

দুর্ভাগ্য, বাঙ্গালিরা সেক্সিজমের বাংলা জানে না। এদের মাথায় সেক্স ছাড়া অন্য ভাবনা নেই। তাই সেক্স দিয়ে যে শব্দই শুরু হয়, সবকিছুকেই যৌনসঙ্গম ভেবে নেয়। সেক্সিজম স্টিল একজিস্ট- এর অনুবাদ বাংলা পত্রিকাগুলো করেছে, ‘যৌনতা এখনও বেঁচে আছে’। গাণ্ডুদের কাণ্ড দেখে হাসবো না কাঁদবো বুঝে পাচ্ছি না। সেক্সিজম মানে যে নারীবিদ্বেষ বা লিঙ্গবৈষম্য তা বোঝার ক্ষমতা এদের নেই, এরাই এখন শিল্পী সাহিত্যিক সাংবাদিক। এরাই যৌনরসাত্মক বর্ণনা দিয়ে এদের খবরটা ভরিয়েছে, এরা বলতে চাইছে যেহেতু যৌনতা ছাড়া আমি বাঁচি না, তাই যৌনতা নিয়ে পোস্ট দিয়েছি। bd24live, somoyerkonthosor, Bangladesh Journal,Kolkata24x7 এরকম সবাই লিখেছেঃ

”JANUARY 8, 2019
‘যৌনতা’ নিয়ে ফের আলোচনায় তসলিমা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক- নানা বিষয় নিয়ে বিতর্কিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন। যার মধ্যে অন্যতম ধর্মীয় বিষয়ে ‘বিরূপ মন্তব্যে’ নির্বাসিতও হয়েছেন। বর্তমানে তিনি ভারতে রয়েছেন। সেখানেও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না তার। নানা সময় বিভিন্ন মন্তব্য করে আলোচনায় আসেন বাংলাদেশি এই লেখিকা।

ফেসবুক বা টুইটারের দেওয়ালে ব্যক্ত করেন নিজের মনের ভাব। সেখানে রাজনীতি থেকে শুরু করে সমাজের নানাবিধ ইস্যু প্রতিফলিত হয়। তালিকায় বাদ যায় যায় না আন্তর্জাতিক সম্পর্কের মতো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুও। সমানভাবে তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের দেওয়ালে সমানভাবে গুরুত্ব পেয়ে এসেছে যৌনতাও।

আর এই যৌনতা নিয়েই বিভিন্ন সময়ে সরব হয়েছেন এই নির্বাসিত লেখিকা। তার কলমে উঠে এসেছে যৌনতা নিয়ে সমাজের নানান আঙ্গিক। পাশাপাশি এই প্রসঙ্গে কখনোই কিছু গোপন করেননি তিনি। নিজের একাধিক সঙ্গীর কোথাও নিজের আত্মজীবনীতে লিখেছেন তসলিমা।

সেই যৌনতা নিয়েই মঙ্গলবার টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেছেন লেখিকা তসলিমা নাসরিন। যে ছবিতে কোনো ক্যাপশন ছিল না। তসলিমার একদিকে কাত হয়ে অর্ধেক শুয়ে থাকা সেই ছবিতেই লেখা ছিল তিনটি শব্দের একটি বাক্য।

রাস্তার উপরে বাঁ দিকে কাত হয়ে অর্ধেক শুয়ে রয়েছেন তসলিমা, আর তার সামনে লেখা ‘Sexism Still Exists’ বাংলায় যার অর্থ ‘যৌনতা এখনো বেঁচে’। ”

আমার এই পোস্ট পড়ে ওরা খবর ডিলিট করবে জেনেই ওদের খবরটি কপি পেস্ট করেছি। কমেন্টে পাবেন গাণ্ডুদের লিংক।

তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক থেকে নেওয়া————-

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here