কুমিল্লায় হাত-পায়ের রগ কেটে যুবক হত্যা !

203

খন্দকার দেলোয়ার হোসেন: কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কমলাপুর বাজারে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা পারভেজ হোসেন (৩৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে,পিটিয়ে ও হাত-পায়ের রগ কেটে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে। এঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। নিহতের স্বজন ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, জেলার আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের আব্দুল মবিনের ছেলে পরিবহন ব্যবসায়ী পারভেজ হোসেন বৃহস্পতিবার অন্যান্য দিনের মতো বিকেলে তার নিজ এলাকা সংলগ্ন সৈয়দপুর বাজারে অবস্থান করছিলেন।

সন্ধ্যা সোয়া ৬ টায় একই ইউনিয়নের ধনুয়াখোলা গ্রামের শাহীন,সাদ্দাম ও সাইফুলের নেতৃত্বে মোটরসাইকেল ও একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে ১২/১৪ জনের একটি সন্ত্রাসীদল এসে অতর্কিতভাবে পারভেজের উপর হামলা চালায়। তারা মারধর করে এসময় মাইক্রোবাসে করে পারভেজকে কিছুটা দুরের কমলাপুর বাজারের কামালের মালিকানাধীন একটি স’মিলে নিয়ে যায়। সেখানে লোহার রড , হাতুড়ি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে,পিটিয়ে এক পর্যায়ে হাত ও পায়ের রগ কেটে ফেলে রাখে। খবর পেয়ে নাজিরাবাজার ফাঁড়ির এসআই মাহবুব রাত ৮ টায় ঘটনাস্থলে এসে আশংকা জনক অবস্থায় উদ্ধার করে পারভেজকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তৃব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

নিহত পারভেজের মা গোলাপী বেগম ও মামা চাঁন মিয়া সাংবাদিকদের জানান, ধনুয়াখোলা গ্রামের লুৎফুর রহমানের ছেলে যুবলীগ ক্যাডার শাহীন ,সৈয়দপুর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে সাদ্দাম, কমলাপুর গ্রামের মুছা মিয়ার ছেলে সাইফুল,জয়নাল মেম্বারের ছেলে কাউসার , মনষাশন গ্রামের সফিক মেম্বারের ছেলে বিল্লাল.রায়চৌঁ গ্রামের জারু মিয়ার ছেলে রুবেল সহ অজ্ঞাত কয়েকজন সন্ত্রাসীরা এই হামলা চালায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক সুত্র জানায়, এই সকল ক্যাডার বাহিনীর অত্যাচারে কালিরবাজার এখন অপরাধীদের স্বর্গ রাজ্য। এই সন্ত্রাসীবাহিনীদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতেও সাহস পাচ্ছেনা। এব্যাপারে, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল হক বলেন,থানায় এখনো মামলা হয়নি। তবে শুনেছি নিহত পারভেজের বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ ৪/৫ টি মামলা রয়েছে।