রাবিতে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রোভিসি

114

রাবি প্রতিনিধি: দুরদৃষ্টিসম্পন্ন ছাড়া সমাজের কোন পরিবর্তন হয় না। যারা বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছো এতে হয়তো বিতর্ক অর্থ, প্রতিপত্তি এনে দিবে না। কিন্তু লোভ, লালসা থেকে বিরত রেখে কল্যাণকামী ও বন্ধুত্বপূর্ণ সমাজ গঠনে সহায়তা করবে। আগামীর কল্যাণমুখী সমাজ বিনির্মাণে বিতার্কিকদের এগিয়ে আসার আহবান জানান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রোভিসি অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে (টিএসসিসি) গ্রুপ অব লিবারেল ডিবেটারস্ (বাংলাদেশ) আয়োজিত বিতর্ক উৎসবের উদ্বোধন পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিতার্কিকদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।
সংগঠনটির সভাপতি সোহরাব হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান ও সদস্য তাজরিন মেধার সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন-ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক লায়লা আরজুমান বানু, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ, ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন-গোল্ড বাংলাদেশ’র মডারেটর প্যানেলের সদস্য ও সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক রবিউল ইসলাম এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক মামুন আ. কাউয়ুম।
এদিকে উদ্বোধন পর্ব শেষে অতিথি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিতার্কিকদের অংশগ্রহণে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে। ‘মানুষের জন্য ফাউ-েশন’র সহযোগিতায় এই বিতর্ক উৎসবে ঢাবি, জাবি, রাবি, রুয়েটসহ দেশের ১৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অর্ধ-শতাধিক বিতার্কিক অংশ নিয়েছেন। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার মুক্তমঞ্চে উৎসবের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হবে।