উল্লাপাড়ায় ঘুড়ি দাম বাকী দশ টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, নিহত ১ আহত ১

203

মাসুদ রানা: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া পৌরসভার আদর্শগ্রাম মহল্লার আনন্দর ছেলে ঘুড়ি ব্যবসায়ী নিত্যরঞ্জনের কাছ থেকে দুদিন আগে দশ টাকা বাকী রেখে ঘুড়ি ক্রয় করে। বাকী টাকা আদায় করাকে কেন্দ্র করে নিত্যরঞ্জন গংয়ের সাথে আনন্দ গংয়ের মধ্যে শনিবার সন্ধার দিকে সংঘর্ষ বাধে। এ ঘটনায় ওই মহল্লার শবিতার স্বামী চন্দ্রনাথ(৫৫) নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয় এবং বন্ধনা নামের এক গৃহবধূ আহত হন। নিহত চন্দ্রনাথ একই মহল্লার রঘুনাথের ছেলে। নিত্যরঞ্জন ওই মহল্লার জীবন কুমাড়ের ছেলে।

উল্লাপাড়া মডেল থানার উপ-পরিদর্শক নূরে আলম সিদ্দিকী ও স্থানীয়রা জানান,দুদিন আগে জীবন কুমাড়ের ছেলের কাছ থেকে আনন্দর ছেলে দশ টাকা বাকী রেখে ঘুড়ি ক্রয় করে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে মন কষাকোষি চলছিলো। শনিবার বিকেলে বিলসূর্য্য নদীপাড়ে ঘুড়ি উড়ানোকে কেন্দ্র করে আদর্শগ্রামের জীবন কুমারের ছেলে মেয়েদের সঙ্গে শ্রীবাসের ছেলে মেয়েদের আবার কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে সন্ধায় জীবন কুমারের লোকজন শ্রীবাসের লোকজনের উপর হামলা করে। শ্রীবাস আনন্দ পক্ষের লোক। এসময় সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন চন্দ্রনাথ। সংঘর্ষের পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাস্তায় তিনি মারা যান। সংঘর্ষে আহত গৃহবধু বন্ধনা শ্রীবাসের স্ত্রী। তাকে উল্লাপাড়া কাওয়াক ৩০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ রাতেই নিহত চন্দ্রনাথের লাশ উদ্ধার করেন থানা পুলিশ। রোববার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্য বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে শ্রীবাসের পক্ষ থেকে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এদিকে সংঘর্ষের পর জীবন কুমারের লোকজন বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছেন।