যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু ৮০ হাজার, করোনার সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প 

94
নূরুল আলম আবির।। বিশ্বমোড়ল যুক্তরাষ্ট্রে এ মুহূর্তে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮০ হাজার ২৭ জনে। আর আক্রান্ত ১৩ লাখ ৪৬ হাজার ৭৭১ জন। ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের প্রেস সেক্রেটারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন শুক্রবার। আরো বেশ কয়েকজনকে পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। এর আগের দিন ট্রাম্পের সামরিক একজন কর্মকর্তা করোনা আক্রান্ত হিসেবে চিহ্নিত হয়েছেন। ওই ব্যক্তি ট্রাম্প ও তার পরিবারের সদস্যদের খাবার ও পানীয় নিরাপদ কিনা, তা পরীক্ষার দায়িত্বে ছিলেন। রবিবার ট্রাম্প কন্যা ইভাংকাও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এ মুহূর্তে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছেন। সারাবিশ্বকে অঙ্গুলি উঁচিয়ে তর্জনগর্জন করা যুক্তরাষ্ট্র করোনার কাছে কোনঠাসা হয়ে পড়েছে। হাসপাতালগুলো রোগীতে ভরপুর। বারান্দা পেরিয়ে কোনো কোনো হাসপাতাল সংলগ্ন রাস্তায়ও চলছে চিকিৎসা। চিকিৎসক, নার্সও আক্রান্ত হচ্ছেন নীরবে। এ অবস্থায় করোনার নতুন কোনো প্রতিষেধকই দেশটির ভরসা। চীনে শতভাগ সফল করোনার টিকা আবিষ্কারের ঘোষণার পর কিছুটা নড়েচড়ে বসেছে বিশ্ব। যুক্তরাষ্ট্রেও চলছে টিকা আবিষ্কারের জোর তৎপরতা। বিজ্ঞানীরা নির্ঘুম হয়ে কাজ করছে। কিছুটা আশার আলো ঠিকরে বেরিয়ে পড়তে শুরু করেছে করোনার অন্ধকারময় মৃত্যুপুরী পৃথিবীতে। বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোর চেয়ে করোনায় যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা বেশ নাজুক। লাশ সামলানোই এখন তাদের জন্য বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে দেশটি। যুক্তরাষ্ট্রের সবকটি অঙ্গরাজ্যেই এই ভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস এখন বিশ্ব মহামারিতে রূপ নিয়েছে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ৪০ লাখ ৯৭ হাজার ৫১৩ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর এতে বিশ্বব্যাপী প্রাণ হারিয়েছে ২ লাখ ৮০ হাজার ১৬৭ জন। এদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪ লাখেরও বেশি মানুষ। বিশ্বের ১০৯ টি দেশ ও অঞ্চলেই দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি। এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক কার্যকরভাবে ব্যবহার করতে পারেনি কোনো দেশ। তবে মে’র শেষ দিকে এবং জুনে ব্যবহার হতে পারে নতুন টিকার। কার্যকর কোনো প্রতিষেধকই বিশ্ববাসীকে স্বস্তি এনে দিতে পারে। মুক্তি আসতে পারে ভয়াল এ মহামারী থেকে।