চাচি আমি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল ত্রাণ দিতে আইছি

113
নুরুল আলম আবির: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কনকাপৈত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল অসহায় কর্মহীন, গরীব ও খেটে-খাওয়া মানুষের কাছে সরকার এবং নিজ তহবিলের দেয়া খাদ্য সামগ্রী ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন। এসময় তিনি চাচী, চাচা ইত্যাদি মমতামাখা শব্দ ব্যবহার করে ঘরে ঘরে ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন। তিনি বলেন, “চাচি আমি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল ত্রাণ দিতে আইছি”। এভাবেই মানবতার সেনানী হয়ে অসহায় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন কনকাপৈতের ইউপি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল।
ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন ত্রাণ। তিনি দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং চৌদ্দগ্রামের তুমুল জনপ্রিয় সাংসদ সাবেক সফল রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক এমপির আহবানে ও নির্দেশে সারা ইউনিয়নে এভাবেই ত্রাণ তৎপরতা চালাচ্ছেন। এভাবে ব্যাপক হারে সারা চৌদ্দগ্রামের একটি পৌরসভা ও তেরোটি ইউনিয়নে ত্রাণ তৎপরতা চলছে। বুধবার (২২ এপ্রিল) বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) মহামারি প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলা সাধারণ মানুষের কাছে কনকাপৈতের ইউপি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল এ সকল ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন। বিতরণকৃত খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, আলু, তেল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী।
এ বিষয়ে চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল সাংবাদিকদের বলেন, আমার  ইউনিয়নে সরকারী সহযোগিতা এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে  মোট ২ হাজার ৫০০ মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি। আমি আমার প্রিয় নেতা এবং সরকারের  নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছি। প্রতিদিন ইউনিয়ন পরিষদে সময় দিয়ে ত্রাণ বিতরণ কর্যাক্রম তদারকি করছি। একই সাথে রাত্রি বেলা ১০টা পর্যন্ত ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের হাটবাজারে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক দোকানপাট চায়ের দোকান বন্ধ রাখার ব্যাপারে কর্মতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছি। এ সময় ক্ষতিগ্রস্থ কর্মহীন, উপার্জনহীন মানুষের কথা শুনে যারাই ত্রাণ সহায়তা চাচ্ছেন সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রি বিতরণ করছি। এখনো যদি কেউ ত্রাণ সামগ্রী না পেয়ে থাকেন আপনারা স্ব-স্ব গ্রামের  নবগঠিত ইউনিয়ন ত্রান কমিটির সাথে অথবা সরাসরি আমার সাথে যোগাযোগ করবেন। প্রিয় ইউনিয়নবাসী আপনারা জানেন আমাদের প্রিয় নেতা পুরো চৌদ্দগ্রামবাসীর প্রতিনিয়ত খোঁজখবর রাখছেন। পৌর মেয়র থেকে শুরু করে প্রতিটি  ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের সাথে দৈনিক পাঁচ বারের মতো খোঁজ খবর নিচ্ছেন। সুতারাং আমার  ইউনিয়নেও আপনারা কেউ ত্রাণ সহযোগিতা থেকে বাদ পড়বেন না ইনশাআল্লাহ।
তিনি আরোও বলেন আমার ইউনিয়নের সূর্য সন্তান ডুবাই প্রবাসী জাগজুর গ্রামের বাসিন্দা কনকাপৈত ইউনিয়ন পরিষদের প্যানাল চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসেন ভুট্টোর বড় ভাই নুরুল ইসলামের নিজস্ব সহযোগিতার মাধ্যমে ৭০০ পরিবারের খাদ্য সামগ্রী যোগান দিতে সক্ষম হয়েছি। আমি আবারও বলবো প্রিয় ইউনিয়নবাসী আপনারা সরকারের দেয়া সকল নির্দেশনাগুলো মেনে চলুন।  প্লিজ আপনারা ঘরে থাকুন। সুস্থ থাকুন। এ সময় তিনি সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের আহবান জানান, সমাজের অসহায় ও কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।