দিনাজপুরে দরিদ্রদের সাহায্যার্থে সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা রজব

106

এম এ হাসান: গোটা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশও যখন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে চরম আতঙ্কিত। সকলেই নিজ নিজ পরিবারকে এই মহামারী থেকে বাঁচাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ সরকারও এই করোনামহামারী সংক্রমণ থেকে দেশকে মুক্ত রাখতে বেশ কিছু নির্দেশনা সহ কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। সরকারের সকল নির্দেশনাকে সামনে রেখে, জনগণকে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করতে ও দরিদ্র – খেটে খাওয়া মানুষের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন দিনাজপুর জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি আবু ইবনে রজব।

বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি আবু ইবনে রজব নিজেই দলীয় দুই একজনকে সঙ্গে নিয়ে দিনাজপুর পৌর শহরের বেশ কিছু এলাকায় ছিন্নমূল, খেটে খাওয়া-দিনমজুর, অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করতে দেখা যায়। এছাড়া, তিনি করোনা ভাইরাসে আতঙ্কিত না হয়ে, করোনা প্রতিরোধে জনগনের সচেতনতা বাড়াতে লিফলেট বিতরণ করেন।

এব্যাপারে সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি রজব জাতীয় দৈনিক কালজয়ী কে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সময়োপযোগী সুদক্ষ দিক নির্দেশনায় এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য মাননীয় হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি’র সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় এবং মাননীয় হুইপ ‘ র ঐকান্তিক দিকনির্দেশনায়, আমরা জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা কর্মীরা নিজেদেরকে নিরাপদ রেখে, এলাকার খেটে খাওয়া-দিনমজুর ও অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী, জীবননাশক ও মাস্ক বিতরণ সহ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচার উপায় ও ভাইরাসটির প্রকটতা সম্পর্কে ব্যাপক ভাবে সচেতনাতা বাড়াতে, নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছি। কারণ, বিগত দিনে যেকোনো দুর্যোগ বা বিপদে স্থানীয় সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিম এমপি সবসময় এলাকার জনগণের পাশে সাহায্যের হাত নিয়ে যথাসাধ্য ভাবে এগিয়ে এসেছিলেন, সেভাবেই তিনি বর্তমান সঙ্কটমুহূর্তেও, এলাকার জনগণের সাহায্যার্থে এগিয়ে আস্তে কোনো সময়ক্ষেপণ করেন নাই। হুইপ ইকবালুর রহিম এর কর্মী হিসাবে দিনাজপুর জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ যেকোনো দুর্যোগ ও বিপদে তাদের সাধ্যমত এলাকার সাধারণ দরিদ্র মানুষের পাশে সবসময় ছিল, বর্তমানেও আছে এবং অবশ্যই ভবষ্যতেও থাকবে, ইনশাআল্লাহ। তারই ধারবাহিকতায় আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা।

সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা রজব আরো বলেন, সমাজের যারা বিত্তবান ব্যাক্তিরা আছেন তারা যদি, এলাকার দিনমজুর ও দরিদ্র মানুষের পাশে একটু সহযোগিতার হাত দাঁড়ান তাহলে, করোনার মহামারী ও সংক্রমণ কে পুরোপুরিভাবে রুখতে পারবো। কারণ দিনমজুর খেতে খাওয়া মানুষেরা তাদের জীবাকার তাগিদে ঘরে অবস্থান করতে পারবেন না। যারা দরিদ্র অসহায় দিনমজুর তারা যেন নিজ নিজ ঘরে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক অবস্থান করতে পারে এজন্য, সমাজের সকল বিত্তবান ব্যাক্তিদের প্রতি উদাত্ত আহব্বান জানাচ্ছি, আপনারা নিজ নিজ অবস্থান থেকে এলাকার দরিদ্র জনগণের পাশে সাহায্যের্থে এগিয়ে আসুন। নিজেকে নিরাপদ রাখুন, অন্যদেরকে নিরাপদ থাকতে সহযোগিতা করুন। আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় পারে, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ তথা বর্তমান বিশ্ব মহামারী থেকে দেশকে ও দেশের মানুষকে নিরাপদে রাখতে।