মুজিব বর্ষে কুবিতে সাশ্রয়ী হ্যান্ড সেনিটাইজার বিতরণ

359

মাহফুজ কিশোর: করোনায় ধরাশায়ী পুরো বিশ্ব। একইভাবে দেশেও বাড়ছে এর আতঙ্ক। এরই মাঝে শুরু হওয়া মুজিব বর্ষের প্রথমদিনে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচার লক্ষ্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ফার্মেসি বিভাগ। ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসে মাত্র ২৫ টাকা শুভেচ্ছা মূল্যে প্রতিটি হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করে তারা।

মঙ্গলবার সকালে স্যানিটাইজার বিতরণপর্ব উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী। এসময় তিনি বলেন, ফার্মেসি বিভাগের জনকল্যাণকর এমন উদ্যোগকে আমি সাধুবাদ জানাই। হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রস্তুতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা আর্থিক সহযোগিতা করেছি। এটা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের জন্য সৌভাগ্যের বিষয়।

১৬ মার্চ (সোমবার) গভীর রাত পর্যন্ত ফার্মেসি বিভাগের ল্যাবে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও ল্যাব সহকারীর সহযোগিতায় প্রায় ১০০০ হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রস্তুত করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া বিধি মেনে প্রতিটি হ্যান্ড স্যানিটাইজার বোতলে ৫০ মি. লি. স্যানিটাইজার মিশ্রণ সরবরাহ করে এর নামমাত্র শুভেচ্ছা মূল্য ধরা হয়েছে ২৫ টাকা, যা বাজারের যেকোনো কোম্পানির স্যানিটাইজার পণ্যের তুলনায় অনেক কম। এসব প্রস্তুতে নেতৃত্ব দিয়েছেন বিভাগটির শিক্ষকবৃন্দ। এতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৫০ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছে।

এর আগে ১৫ মার্চ রাতেও বিভাগটি নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ৩০০টি হ্যান্ড সেনিটাইজার প্রস্তুত করেছিল। পরদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে হ্যান্ড সেনিটাইজারগুলো সম্পূর্ণ বিনামূল্যে বিতরণ করে তারা।

প্রস্তুতকৃত এই স্যানিটাইজার ব্যাবহারে করোনাভাইরাসসহ যেকোনো ধরনের ভাইরাস থেকে বেঁচে থাকা সম্ভব বলে জানিয়ে ফার্মেসি বিভাগের প্রধান সৈয়দ কৌশিক আহমেদ বলেন, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী হ্যান্ড স্যানিটাইজারের দাম বৃদ্ধি করে বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করেছে। ফার্মেসি হেলথ রিলেটেড সাবজেক্ট হওয়ায় দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে জনস্বার্থে আমরা স্বল্পমূল্যের স্যানিটাইজার প্রস্তুত করেছি। প্রয়োজনীয় আর্থিক সহযোগিতা পেলে আরও বৃহৎ পরিসরে স্যানিটাইজার তৈরি সম্ভব হবে।