জগন্নাথের ছাত্রী হল “বাইরেই দৃশ্যমান, ভেতরে ভাসমান”

92
ফয়সাল আরেফিন: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নির্মাণাধীন শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রী হলের কাজ শেষ করার দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। এক মাসের মধ্যে হলের কাজ শেষ করার বিষয়ে সুস্পষ্ট বক্তব্য দেওয়ার জন্য শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরকে (ইইডি) আল্টিমেটাম দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১ টায় ক্যাম্পাসের শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে মানববন্ধনে করেন শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে গোটা ক্যাম্পাস প্রদক্ষিন করে। এসময় বিক্ষোভ মিছিল থেকে, ‘আমার বোন মেসে কেনো প্রশাসন জবাব চাই’, হল নিয়ে টালবাহানা চলবে না, মানবো না’ ইত্যাদি স্লোগান দেয়া হয় । মানববন্ধনে জবির ৭ দফা আন্দোলনের সমন্বয়ক রাইসুল ইসলাম নয়ন বলেন, আগামী এক মাসের মধ্য হলের কাজ শেষ করতে হবে ইইডিকে। সেঅনুযায়ী সুপষ্ট বক্তব্য দিতে হবে। অন্যথায় আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবে। ৭ দফা আন্দোলনের সংগঠক তাওসিব মাহামুদ সোহান বলেন, আমাদের ছেলে-মেয়েরা কত কষ্ট করে খেয়ে-না খেয়ে মেসবাড়িতে থাকছে। ৪দফা মেয়াদ বাড়িয়েও ৯ বছরে হল শেষ হয় না, এটা শিক্ষার্থীদের সাথে উপহাস ছাড়া আর কিছু না। ইইডিকে অবশ্যই সুস্পষ্ট বক্তব্য দিতে হবে এবং একমাসের মধ্যে হল হস্তান্তর করতে হবে। সাধারণ ছাত্র অধিকার রক্ষা পরিষদ জবি শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান মিশু বলেন, সরকার দেশে এতো এতো মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে যা এখন দৃশ্যমান অথচ জবির ছাত্রী হলের কাজ ২০১১সালে শুরু হয়েও ৯ বছর পর তা বাস্তবায়ন হচ্ছে না। কর্তৃপক্ষ বারবার আশ্বাসের দিলেও কোনো ফলাফল আসছে না। আমরা দ্রুত এর সমাধান চাই। উল্লেখ্য, সরকারি কাজের মেয়াদ ২ বারের বেশি বাড়ানোর সুযোগ না থাকলেও ৪ দফা সময় বাড়ানোর পরও জবির নির্মানাধীন একমাত্র ছাত্রীহলের নির্মাণ কাজ শেষ করতে পারিনি শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতর (ইইডি)। ২০১১ সালের কাজ শুরু করে থেকে দীর্ঘ ৮ বছরেও কাজ শেষ না হওয়ায় তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে।