ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত সোনারগাঁয়ের জুয়েল

55

শাহাদাৎ হোসেন শিপনঃ নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ঈমানেরকান্দি গ্রামের জুয়েল (১৬) দুরারোগ্য ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত হয়ে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে।

জানাগেছে, উপজেলার সনমান্দি ঈমানেরকান্দি গ্রামের নয়াবাড়ি রহিম স্টীল মিলে শ্রমিক সালেহ আহম্মদের ৩ ছেলে মেয়ের মধ্যে সবার বড় জুয়েল । জুয়েল ২০১৬ সালে জেএসসি পরিক্ষার্থী ছিল। কিন্তু তার মাথায় তীব্র ব্যাথা থাকায় সে পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে পারেনি। সে সময় থেকেই সে মাথা ব্যাথা নিয়ে দূর্বিসহ যন্ত্রনায় দিনযাপন করছে। সম্প্রতি তার সে ব্যাথা আরো তীব্র আকার ধারণ করলে তার বাবা সালেহ আহম্মদ একজন স্থানীয় ডাক্তারের সরণাপন্ন হন। তখন সে ডাক্তার তাকে ভালমতো দেখে একটি সিটিস্কিন করার পরামর্শ দেন। এরপর জুয়েলের পিতা সালে আহম্মদ নারায়ণগঞ্জ এলাকায় একটি ক্লিনিকে নিউরোলোজি বিশেষজ্ঞ কাছে নিয়ে গেলে তিনিও একটি সিটিস্কিন করার পরামর্শ দেন। তার পরামর্শ মোতাবেক সিটিস্কিন করার ডাক্তার জানান তার ব্রেন টিউমার হয়েছে। এটা নিরাময় করতে হলে তার মাথায় অপারেশনের করতে হবে। সেজন্য ব্যয় হবে ৬/৭ লাখ টাকা। এরপর জুয়েলের বাবা আরো একাধিক বিশেজ্ঞের কাছে গেলে তারও একই পরামর্শ দেন। এদিকে, ছেলের চিকিৎসা করাতে আনুমানিক ৬/৭ লাখ টাকার কথা শুনে তার গরীর বাবা ও তার পরিবার দিশেহারা।

জুয়েলের বাবা সালেহ আহম্মদ জানান, আমি একজন সামান্য বেতনের দৈনিক হাজিরার শ্রমিক। পরিবার চালাতেই যেখানে হিমশিম খাচ্ছি সেখানে ছেলের চিকিৎসা করতে এতো টাকা কোথায় পাব। যে পরিমান জমানো টাকা ছিল তা দিয়ে ছেলের চিকিৎসার পেছনে ব্যয় হয়ে গেছে। এখন টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছিনা। এদিকে, প্রচন্ড মাথার যন্ত্রনায় বিছানায় শুয়ে ছটফট করছে। আমি বাবা হয়ে ছেলে দিকে তাকাতে পারছিনা। চোখের সামনে আমার বুকের ধন বড় ছেলেটা দিনে দিনে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে। যা একটা বাবার পক্ষে মেনে নেয়া অসম্বব। এমতাবস্থায় সমাজের বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে আল্লাহ হয়ত তাদের উছিলায় আমার বুকের ধনকে বাঁচাতে পারে। তাই আমি বিত্তবানদের নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি চিকিৎসার সাহায্যের জন্য।

যদি কোন হৃদয়বান ব্যক্তি তার চিকিৎসা জন্য সহায়তা প্রদান করতে ইচ্ছুক হন তাহলে তার বাবা সালেহ আহম্মদ এর নাম্বারে – ০১৯৫৭২৩৪৮৯৭ নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করেছেন।