ধুনটে চাঁদাবাজীকে কেন্দ্র করে যুবলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

53

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি: দলিল নিবন্ধনের নামে চাঁদাবাজীকে কেন্দ্র করে বগুড়ার ধুনট সাব-রেজিষ্ট্রী কার্যালয়ে যুবলীগের নেতাকর্মীদের দু’পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সাব-রেজিষ্ট্রী কার্যালয় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইদুল ইসলাম (৩৮), উপজেলা যুবলীগের সহসম্পাদক সুজন মিয়া (৩৮) ও উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম (৩৮) আহত হয়েছেন। আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। সংঘর্ষচলাকালে সাব-রেজিষ্ট্রী কার্যালয় এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। এসময় জমির বিক্রেতা, গ্রহীতা ও দলিল লেখকরা ভয়ে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নেয়। এ ঘটনায় দুপুর ২টা পর্যন্ত দলিল নিবন্ধন বন্ধ ছিল।

এ সময় ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনকালে যুবলীগের দুই নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন, উপজেলা যুবলীগের সদস্য জালশুকা গ্রামের মিন্টু মিয়া (৩৫) ও উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাবেক সভাপতি ঈশ্বরঘাট গ্রামের দলিল লেখক ফজলুল হক (৩২)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাব রেজিষ্ট্রী কার্যালয়ে দলিল নিবন্ধনের নামে সরকারি ফি’র বাইরে অতিরিক্ত হারে টাকা আদায় করে যুবলীগের নেতাকর্মীরা। এই টাকার ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে যুবলীগের নেতাকর্মীরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েন। এর এক পক্ষের নেতৃত্ব দেন উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক দলিল লেখক সাইদুল ইসলাম ও অন্য পক্ষের নেতৃত্ব দেন উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি দলিল লেখক ওহিদুল ইসলাম।

সম্প্রতি ওহিদুল ইসলাম নিজেকে সভাপতি বানিয়ে উপজেলা দলিল লেখক সমিতির কমিটি গঠন করে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এ অবস্থায় সাইদুল ইসলাম নিজেকে সভাপতি দাবী করে উপজেলা দলিল লেখক সমিতির নেতৃত্ব দেওয়ার চেষ্টা করে। এ বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করে।

এ অবস্থায় বুধবার সকালের দিকে ওহিদুল ইসলাম তার কমিটির লোকজন নিয়ে বৈঠকে বসে প্রতিটি দলিল নিবন্ধনের নামে সরকারি ফি’র বাইরে অবৈধ ভাবে অতিরিক্ত ১০০ টাকা করে আদায়ের সিদ্ধান্ত নেন। সাইদুল ইসলাম তার কমিটির লোকজনকে একত্রিত করে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করতে থাকে। এ ঘটনা নিয়ে দ’পক্ষের মাধ্য পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইদুল ইসলাম বলেন, ওহিদুল ইসলাম দলিল নিবন্ধনের নামে অবৈধ ভাবে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের চেষ্টা করে। এর প্রতিবাদ করায় ওহিদুল ও তার লোকজন হামলা চালিয়ে আমিসহ আমার লোকজনকে আহত করেছে।

উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ওহিদুল ইসলাম বলেন, দলিল লেখক সমিতির সভা চলাকালে সাইদুল ইসলাম বহিরাগতদের সহযোগীতায় হামলা চালিয়েছে।

ধুনট সাব-রেজিষ্ট্রার রিপন চন্দ্র মন্ডল বলেন, দলিল নিবন্ধনের নামে অতিরিক্ত টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে দলিল লেখকদের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় কার্যালয় চত্বরে আইন শৃঙ্খলার অবণতি হওয়ায় দলিল নিবন্ধন সাময়িক ভাবে বন্ধ ছিল। পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হওয়ায় যথানিয়মে দলিল নিবন্ধনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে। এ সময় মিন্টু ও ফজলুল হক নামে দুই যুবককে আটক করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।